শাওয়াল মাসের ৬ রোযায় যে মহা প্রতিদান

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯ | ৪ আষাঢ় ১৪২৬

বিষয় :

শাওয়াল মাসের রোজা

শাওয়াল মাসের ছয় রোজা

শাওয়াল মাসের ছয় রোজার ফজিলত

শাওয়াল মাসের ৬ রোযায় যে মহা প্রতিদান

পরিবর্তন ডেস্ক ২:০৭ অপরাহ্ণ, জুন ০৬, ২০১৯

শাওয়াল মাসের ৬ রোযায় যে মহা প্রতিদান

চলে গেলো ইবাদতের বসন্তকাল মহা ফযিলতের রমযান মাস। আমরা শাওয়াল মাসে উপনীত হয়েছি। রাসূল (সা.) রমযানের রোযার পর শাওয়াল মাসে ছয়টি রোযা রাখতেন। আবু আইয়ুব আল আনসারী (রা.) হতে বর্ণিত: রাসূল (সা.) বলেছেন—

من صام رمضان، ثم أتبعه ستا من شوال كان كصيام الدهر. رواه مسلم.

যে ব্যক্তি রমযানের রোযা রাখল, অত:পর শাওয়ালে ছয়টি রোযা রাখল, সে যেন (পূর্ণ) এক বছর রোযা রাখল। (মুসলিম)

আবু আইয়ুব আল আনসারী (রা.) এ হাদীসের বিশ্লেষণ করে বলেছেন:—

صيام رمضان بعشرة أشهر، وصيام ستة أيام بشهرين، فذلك صيام السنة.

রমযানের রোযার বিনিময়ে দশ মাস এবং শাওয়ালের রোযার বিনিময় দু’ মাস—মোট এক বছরের সমপরিমাণ সওয়াব পাবে।

কেননা একটি সৎকাজের বিনিময় হচ্ছে দশ নেকি যা কুরআন ও সুন্নাহ দ্বারা প্রমাণিত।

দুটি মাসআলা:
১. যে ব্যক্তি শাওয়ালের রোযা রাখবে সে প্রথমে রমযানের কাজা আদায় করে নিবে, যদি তার দায়িত্বে রমযানের কাজা থেকে থাকে। এরপর শাওয়ালের রোযা রাখবে। রাসূল (সা.)-এর হাদিসে এর প্রমাণ রয়েছে।
২. শাওয়ালের ছয় রোযা ধারাবাহিকভাবে অথবা বিরতি দিয়েও রাখতে পারবে।

এমএফ/

আরও পড়ুন...
তাহাজ্জুদের দু’আ!
তাহাজ্জুদের নিয়তে ঘুমালেও সদকা!
দুআ কবুলের প্রতিশ্রুতি যে নামাযে
কেন নামায পড়া আমাদের একান্ত প্রয়োজন?
প্রথম কাতারে নামায : আল্লাহকে ভালবাসার উত্তম প্রতিযোগিতা
নামাযে বিভিন্ন কথা মনে হয়? আপনার জন্য চার পরামর্শ
নামাযে রাকাত নিয়ে সংশয়ে পড়লে যা করবেন
নামাযে অজু নিয়ে সন্দেহ হলে কি করবেন?
প্রস্রাবের পর পোশাকের পবিত্রতা নিয়ে সন্দেহ হলে যা করবেন 

সিজদা কেন এত গুরুত্বপূর্ণ?
এই উত্তম সময়টিতে আল্লাহর সঙ্গে কথা বলুন
চাশতের নামাযের ফযিলত ও আদায়ের নিয়ম