ঋণগ্রস্ত হওয়া থেকে বাঁচতে নবীজি (সা.) যে দুআ করতেন

ঢাকা, ১৮ জুলাই, ২০১৯ | 2 0 1

ঋণগ্রস্ত হওয়া থেকে বাঁচতে নবীজি (সা.) যে দুআ করতেন

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:২৪ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৮

ঋণগ্রস্ত হওয়া থেকে বাঁচতে নবীজি (সা.) যে দুআ করতেন

রাসুলুল্লাহ (সা.) ঋণ হতে আল্লাহর নিকট বেশি বেশি আশ্রয় প্রার্থনা করতেন, যা দেখে এক ব্যক্তি তাঁকে জিজ্ঞাসা করেন, হে আল্লাহর রাসুল!  আপনি ঋণ থেকে খুব বেশি বেশি আশ্রয় প্রার্থনা করেন! নবী (সা.) বলেন-

إن الرجل إذا غرم حدّث فكذب و وعد فأخلف - رواه البخاري

“মানুষ ঋণী হলে, যখন কথা বলে, মিথ্যা বলে এবং অঙ্গীকার করলে অঙ্গীকার ভঙ্গ করে।” (বুখারী, অধ্যায়ঃ ইস্তিকরায, নং ২৩৯৭)

তাই তিনি (সা.) বলতেন-

أللّهمَّ! إنّي أعوذُ بِكَ مِنَ الكَسَلِ والهَرَمِ والمأثَمِ والمَغْرَمِ  - رواه مسلم

উচ্চারণঃ আল্লাহুম্মা! ইন্নী আউযুবিকা মিনাল্ কাসালি, ওয়াল্ হারামি, ওয়াল্ মা’ছামি, ওয়াল্ মাগ্রাম॥

অনুবাদঃ “হে আল্লাহ! আমি তোমার কাছে আশ্রয় কামনা করছি অলসতা, অধিক বার্ধক্য, গুনাহ এবং ঋণ হতে।” (মুসলিম, অধ্যায়ঃ যিকর ও দুআ, নং৬৮৭১)

তিনি (সা.) আরো বলতেন-

اللهم! إني أعوذ بك من الهم والحزن، والكسل، والبخل، والجبن، و ضلَع الدين، وغلبة الرجال -  رواه النسائي

উচ্চারণঃ “আল্লাহহুম্মা ইন্নী আউযুবিকা মিনাল্ হাম্মি ওয়াল্ হাযানি, ওয়াল্ আজযি ওয়াল্ কাসালি, ওয়াল্ বুখলি ওয়াল্ জুবনি, ওয়া যালাইদ্দাইনি ওয়া গালাবাতির রিজাল।”

অর্থ: ‘হে আল্লাহ! আমি তোমার নিকট আশ্রয় প্রার্থনা করছি, চিন্তা-ভাবনা, অপারগতা, অলসতা, কৃপণতা এবং কাপুরুষতা থেকে। অধিক ঋণ থেকে এবং দুষ্ট লোকের প্রাধান্য থেকে।’ (নাসাঈ, অধ্যায়: ইস্তিআযাহ, নং ৫৪৭৮)

এমএফ/

আরও পড়ুন...
আয় বাড়াতে যে আমলগুলো করবেন
আপনার হজ-পরবর্তী জীবনাচার যেমন হওয়া উচিত

 

আমল / জীবন পাথেয়: আরও পড়ুন

আরও