ফসলের মাঠে সবুজের হাসি

ঢাকা, বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫

ফসলের মাঠে সবুজের হাসি

নোয়াখালী প্রতিনিধি ১০:৩৬ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ০৭, ২০১৮

ফসলের মাঠে সবুজের হাসি

চলতি ইরি-বোরো মৌসুমে নোয়াখালী জেলার ৯টি উপজেলায় চাষাবাদকৃত ধানের খেতে এখন গাড় সবুজের হাসি। ফসলী মাঠের চতুর্দিকে নজর কাড়ছে ইরি-বোরো ধান ক্ষেত। ইতোমধ্যে খেত পরিচর্যা শেষ করে দ্বিতীয় ও তৃতীয় বার সার কীটনাশক প্রয়োগে ব্যস্ত সময় পার করছেন কৃষকরা।

সুবর্নচর উপজেলার কৃষক হাফিজ মিয়া জানান, এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে গত বছরের তুলনায় এবার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে।

নোয়াখালী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, জেলার নয়টি উপজেলায় হাইব্রিড ও উফশী মিলিয়ে এবার ৭৩ হাজার ২০০ হেক্টর জমিতে আবাদ হয়েছে। এর বিপরীতে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর বোরো চাল উৎপাদনের লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে ২ লাখ ৮৬ হাজার ৫শ ৩০ টন। তবে আবহাওয়া অনুকূল আর পানি সংকট দেখা না দিলে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

গত বছরের তুলনায় এ বছর ১৫ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো-উফশী আবাদ বেশি হয়েছে। মোট আবাদকৃত জমির মধ্যে নোয়াখালী সদর উপজেলায় হাইব্রিড ৫ হাজার ৫০০ হেক্টর, উফশী ২ হাজার ১০ হেক্টর, বেগমগঞ্জে হাইব্রিড ১১ হাজার ৭০০ হেক্টর, উফশী ৫ হাজার ২০০ হেক্টর, সেনবাগে হাইব্রিড ২ হাজার ৫০০ হেক্টর, উফশী ৬ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে আবাদ হয়েছে।

এছাড়া চাটখিলে হাইব্রিড ৬ হাজার ৬৫০ হেক্টর, উফশী ১ হাজার ৪০০ হেক্টর, কোম্পানিগঞ্জে হাইব্রিড ৩ হাজার ৩৪০ হেক্টর, উফশী ১ হাজার ২০ হেক্টর, হাতিয়ায় হাইব্রিড ২ হাজার ৫০০ হেক্টর, উফশী ৫০ হেক্টর, সোনাইমুড়ীতে হাইব্রিড ৮ হাজার ৫০০ হেক্টর, উফশী ২ হাজার ৫০ হেক্টর, সুবর্ণচরে হাইব্রিড ৮ হাজার হেক্টর, উফশী ৫০ হেক্টর এবং কবিরহাটে হাইব্রিড ৬১ হাজার ৮০ হেক্টর ও উফশী ৩০ হেক্টর জমিতে আবাদ হয়েছে। মোট ৫৪ হাজার ৮শ ৭০ হেক্টরে হাইব্রিড এবং উফশী ১৮ হাজার ৩শ ৩৩ হেক্টরে জমিতে আবাদ হয়েছে।

এ ব্যাপারে নোয়াখালী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. আবুল হোসেন জানান, এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে ইরি-বোরো চাল উৎপাদনের যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে তা ছাড়িয়ে যাবে। কারণ উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আবাদ বেশি হয়েছে।

আইএইচএস/এসএফ