জার্মানিকে হারিয়ে ইতালির তৃতীয় বিশ্বকাপ

ঢাকা, সোমবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৮ | ১০ বৈশাখ ১৪২৫

বিশ্বকাপ ফুটবল টিড-বটস

জার্মানিকে হারিয়ে ইতালির তৃতীয় বিশ্বকাপ

পরিবর্তন ডেস্ক ১:২৮ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ২০, ২০১৮

print
জার্মানিকে হারিয়ে ইতালির তৃতীয় বিশ্বকাপ

প্রথমবারের মত ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবল ১৬ দলে থেকে ২৪ দলের টুর্নামেন্টে পরিণত হয় ১৯৮২ সালে। বিশ্বকাপের এই আসরের আয়োজক ছিল স্পেন। চারটি করে দল নিয়ে মোট ছয় গ্রুপে ভাগ করে প্রথম পর্বের খেলা হয়েছিল। প্রতি গ্রুপের শীর্ষ দুই দেশকে নিয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে ৩ দলের ৪টি গ্রুপে ভাগ করা হয়। প্রতিটি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল চারটিকে নিয়ে আয়োজন করা হয় সেমিফাইনাল। বিশ্বকাপের প্রথমবারের মত অংশ নেয় ক্যামেরন, আলজেরিয়া, হন্ডুরাস, নিউজিল্যান্ড ও কুয়েত। পশ্চিম জার্মানিকে হারিয়ে সেবার তৃতীয়বারের মত বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ইতালি।

গ্রুপপর্বে নবাগত দল কুয়েতের সাথে ফ্রান্সের ম্যাচে মজার এক ঘটনা ঘটে। ফরাসিরা ৩-১ গোলে এগিয়ে ছিল। এমন সময় গ্যালারিতে বসা কোন দর্শক শিস বাজান। রেফারি বাঁশি বাজিয়েছেন ভেবে কুয়েতিরা খেলা বন্ধ করে দেয়। সেসময় ফ্রান্সের ডিফেন্ডার ম্যালসিম বোসিস গোল করেন। তবে এই গোল বাতিলের দাবী জানান কুয়েতিরা। কুয়েত ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শেখ ফাহিদ আল-মাহমুদ সেসময় মাঠে এসে রেফারিকে বোঝান, দর্শকের শিস শুনে তার দলের ফুটবলাররা ভুল বুঝে খেলা বন্ধ রেখেছেন। রেফারি তা মেনে নিয়ে গোলটি বাতিল করেন। অবশ্য কয়েক মিনিট পরই বৈধ একটি গোল করেন বোসিস। শেষপর্যন্ত ফ্রান্স ৪-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে।

অন্য এক গ্রুপ ম্যাচে এল সালভাদরকে ১০-১ গোলে হারায় হাঙ্গেরি। এখন পর্যন্ত অন্য কোন দল বিশ্বকাপে এক ম্যাচে ১০ গোল করতে পারেনি।

সেমিফাইনালে পশ্চিম জার্মানি ও ফ্রান্সের মধ্যকার ম্যাচটিকে বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা যেমন বলা হয়, টুর্নামেন্টটির অন্যতম বড় বিতর্কের জন্মও এই ম্যাচে। দুই দল তখন ১-১ গোলে সমতায়। দ্বিতীয়ার্ধে জার্মান গোলরক্ষক হারাল্ড শুমাখার আক্রমণে আসা ফরাসি ফুটবলার প্যাট্রিক বাতিস্তনকে উড়ে গিয়ে চার্জ করেন। তাতে কোমাতেই চলে যান বাতিস্তন। অথচ রেফারির চোখ এড়িয়ে যাওয়ায় এত ভয়ংকর ফাউলের পরও শুমাখারকে লাল কার্ড দেখতে হয়নি। অতিরিক্ত সময়ে গড়ানো ম্যাচটি ৩-৩ গোলে ড্র হওয়ায় পেনাল্টি শুট আউটে যায়। সেখানে একটি পেনাল্টি আটকে হিরো শুমাখার। ম্যাচটি ৫-৪ গোলে জেতে পচিম জার্মানি।

ফাইনালে পশ্চিম জার্মানির মুখোমুখি হয়েছিল ইতালি। ম্যাচটি ৩-১ গোলে হারে পশ্চিম জার্মানি। আজ্জুরিদের অধিনায়ক দিনো জফ সবচেয়ে বয়স্ক ফুটবলার হয়ে বিশ্বকাপ জেতা খেলোয়াড়ের রেকর্ড গড়েন। সেই ম্যাচে গোল করা আলেসান্দ্রো আলতোবলি প্রথম বদলি খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বকাপে গোল করার রেকর্ড গড়েন।

আরো তথ্য-

১. নর্দান আয়ারল্যান্ডের খেলোয়াড় নরম্যান হোয়াইটসাইডের বিশ্বকাপ অভিষেক হয় ১৭ বছর ৪২ দিন বয়সে। যা বিশ্বকাপে খেলা সবচেয়ে কমবয়সী ফুটবলারের রেকর্ড।

২. এই আসরেই বিশ্ব প্রথম দেখে আর্জেন্টিনার জাদুকর ফুটবলের ম্যারাডোনাকে।

এসএম

 

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad