দেশের সবচেয়ে প্রাচীন মাদ্রাসা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

ঢাকা, বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ | ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

দেশের সবচেয়ে প্রাচীন মাদ্রাসা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:১৬ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১০, ২০১৭

print
দেশের সবচেয়ে প্রাচীন মাদ্রাসা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ

দর্স (درس) অর্থ পাঠ। দারুস বাড়ি অর্থ যে বাড়িতে পাঠদান করা হয় অর্থাৎ পাঠশালা। দারুস ও বাড়ি- আরবি ও বাংলা শব্দ ২টি কালের আবর্তে কিঞ্চিত অপভ্রংশ হয়ে একটা শব্দ দারাসবাড়ি হয়েছে। দারাসবাড়ি মাদ্রাসা তৎকালীন বিশ্ববিদ্যালয় মানের পাঠ্যদান কেন্দ্র ছিল। এখন পর্যন্ত দারাসবাড়ি মাদ্রাসা বাংলাদেশের সবচেয়ে প্রাচীন মাদ্রাসার নিদর্শন। সুলতান আলাউদ্দিন হোসেন শাহ ১৫০৪ সালে এ মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেন। মাদ্রাসাটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার শাহবাজপুরে অবস্থিত।

.

 

এ স্থাপনায় বর্গাকৃতির ছড়াছড়ি। বর্গাকার এ স্থাপনাটির প্রতিটি বাহু প্রায় ১৬৯ ফুট দীর্ঘ। তালেবুল এলেমদের ( طالب علم)/ছাত্রদের ঘরগুলোও বর্গাকৃতির। পুরো স্থাপানার ঠিক মাঝখানে অধ্যক্ষ (ناظر) সাহেবের অফিস ঘরটিও বর্গাকৃতির। বর্গের হিসেব করলে ছাত্রদের ঘর সংখ্যা হওয়ার কথা ৪০টি; কিন্তু মোট ৩৭টি ঘর পাওয়া যায়।

বাকি ৩টি ঘরের স্থানে ৩টি প্রবেশ পথ। পশ্চিম দিকে কোন প্রবেশ পথ নেই। পশ্চিমদিকে প্রবেশপথের স্থানে ওয়াক্তিয়া মসজিদ। মসজিদের ৩টি মেহরাবের অস্তিত্ব আজও দৃশ্যমান। টিকে থাকা গড়ে প্রায় ৪ ফুট উঁচু দেওয়ালের উপরে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর ১ ইট পরিমাণ গাঁথুনি দিয়ে দেওয়ালটি টেকসই করার পদক্ষেপ নিয়েছে।

দায়সারা এ গাঁথুনিতে কোনো ইটভাটা থেকে ইট কেনা হয়েছে তাও আপনি দেখতে পাবেন। মাদ্রাসার ভেতর ও বাইরের দেওয়ালে একদম নিচে ছাপ টেরাকোটার একটি স্তর দেখা যায়। পুরো দেওয়ালে একই টেরাকোটা ব্যবহার করা হয়েছে। দেওয়ালে ইট দিয়ে নকশার কাজও চোখে পরে। ইটের নকশাগুলো মূলতঃ জ্যামিতিক।

দারাসবাড়ি মাদ্রাসা চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর এর তালিকাভুক্ত একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা।

যেভাবে যাবেন।
এটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার শাহবাজপুরে অবস্থিত। চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে প্রায় ৩৬ কিলোমিটার দূরত্ব। সিএনজি, অটো বা বাসে করে যাওয়া যায়।

তথ্য ও ছবি : বুরহানুর রহমান

ইসি/

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad