চা বাগানের ভেতরে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে গণধর্ষণ
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০২০ | ২৬ চৈত্র ১৪২৬

চা বাগানের ভেতরে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে গণধর্ষণ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি ১:৩২ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০২০

চা বাগানের ভেতরে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে গণধর্ষণ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ১৭ বছর বয়সী এক বাক প্রতিবন্ধী কিশোরীকে চা বাগানে নিয়ে টমটম চালকসহ চা বাগানের অপর দুই চৌকিদার পালাক্রমে ধর্ষণ করেছে।

এ ঘটনার দুই ঘণ্টা পর শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানার নেতৃত্বে অফিসার ফোর্সসহ দুই ধর্ষককে আটক করতে সক্ষম হয়েছে। তারা দুজনই ওই চা বাগানের নাইট চৌকিদার।

তারা হলো উপজেলার ভাড়াউড়া চাবাগানের মৃত অনিল দোষাদের ছেলে কৈলাশ দোষাদ (২৫) ও একই চা বাগানের মৃত পূজনা মৃধার ছেলে জহর লাল মৃধা (২৯)।

অপর ধর্ষক টমটম চালককে সনাক্ত ও গ্রেফতারের জন্য পুলিশ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে।

পুলিশ জানায়, শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টায় বধ্যভূমি সংলগ্ন ভাড়াউড়া চা বাগানে ভেতরে এ ঘটনা ঘটনা ঘটে ।

ওই কিশোরীর মা জানান, তাদের বাসা শহরের ক্যাথলিক মিশনের পেছনের রহমান মিয়ার কলোনিতে।

তার মেয়ে একই এলাকার শাহ আলম পাটোয়ারীর মেয়ে সাবিনা ইয়াসমিনের স্বামীর বাড়ি দিনাজপুরের ফুলবাড়িয়ায় ঝিয়ের কাজ করতো। গত ৯ দিন আগে সাবিনা ইয়াসমিনের সাথে শ্রীমঙ্গলে বেড়াতে আসে।

পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত সোহেল রানা জানান, শুক্রবার সন্ধ্যার পর একই এলাকার পূর্ব পরিচিত আঞ্জব আলীর ছেলে অটোরিকশাচালক ইয়াকুব আলী (১৬)-কে নিয়ে বধ্যভূমি এলাকায় বেড়াতে যায়।

সেখানে রাত ৯টা পর্যন্ত অবস্থান করে রাস্তার পাশে ঝাল-মুড়ি খাওয়া অবস্থায় অপরিচিত এক টমটম চালক তাদের বাসায় পৌঁছে দেবে বলে তাদেরকে টমটমে উঠায়।

এসময় আগে থেকে সেখানে অবস্থান করা আটককৃত দুই ধর্ষক টমটমে উঠে ভাড়াউড়া চা বাগানের নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে ধর্ষকদের একজন মেয়েটির সাথে থাকা ইয়াকুবকে রশি দিয়ে বেঁধে টমটমে আটকে বসিয়ে রাখে।

প্রথমে টমটম চালক ও ধর্ষক কৈলাশ দোষাদ দুজনে ওই কিশোরীকে জোরপূর্বক চা বাগানের ভেতরে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এরপর তাদের একজন ফিরে এসে পরে টমটমে ইয়াকুবকে আটকে পাহারায় থাকা অপর ধর্ষক জহরলাল মৃধা বাগানের ভেতর গিয়ে তাকে ধর্ষণ করে।

শেষে রাত সাড়ে ১০টার দিকে ধর্ষিতা কিশোরী ও ইয়াকুবকে বধ্যভূমির কাছাকাছি রাস্তায় ধর্ষকরা নামিয়ে দিয়ে টমটম নিয়ে পালিয়ে যায়।

পরে বাসায় গিয়ে তারা পুরো ঘটনা মেয়েটি তার মাকে জানালে তিনি তাদের নিয়ে রাতেই থানায় যান। ঘটনাটি জেনে পুলিশ ধর্ষকদের ধরতে অভিযানে নেমে রাত একটার দিকে তাদের ভাড়াউড়া চা বাগান থেকে আটক করে।

শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুছ ছালেক জানান, ওই কিশোরীকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ও ধর্ষণ সংক্রান্ত ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য রাতেই মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানান, ধর্ষক দুজনকে থানায় নিয়ে আসার পর মেয়েটি ও তার সঙ্গে থাকা ইয়াকুব ধর্ষক দুজনকে সনাক্ত করেছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এইচআর

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও