পুলিশি লাঠিচার্জে বিএনপি’র বিক্ষোভ মিছিল পণ্ড
Back to Top

ঢাকা, বুধবার, ১ এপ্রিল ২০২০ | ১৮ চৈত্র ১৪২৬

পুলিশি লাঠিচার্জে বিএনপি’র বিক্ষোভ মিছিল পণ্ড

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি ৬:১৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯

পুলিশি লাঠিচার্জে বিএনপি’র বিক্ষোভ মিছিল পণ্ড

কারাবন্দী বিএনপি চেয়ারপারসন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে মৌলভীবাজারে জেলা বিএনপি’র বিক্ষোভ মিছিল পুলিশি লাঠিচার্জে পণ্ড করে দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় জেলা বিএনপি, জেলা যুবদল, স্বেচ্ছাসেবকদল, ছাত্রদল, শ্রমিকদল, ওলামাদল ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করতে শহরের শমসেরনগর রোডের বিভিন্ন পয়েন্টে খন্ড খন্ড হয়ে নেতাকর্মীরা জড়ো হলে পুলিশের সাথে বাকবিতন্ডা শুরু হয়।

পরে পুলিশের বাধা পেরিয়ে নেতাকর্মীর মিছিল করতে চাইলে এক পর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ সময় জেলা বিএনপি’র বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মুজাহিদ খান, জেলা বিএনপি’র সাহিত্য প্রকাশনা সম্পাদক ইয়াওর আহমেদ, সদর থানা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মো.মোস্তাফ মিয়াকে পুলিশ আটক করলে বিএনপি’র সিনিয়র নেতারা হস্তক্ষেপ করে ছাড়িয়ে নেন।

বিএনপি’র নেতাকর্মীরা জানান, অন্যান্য দিনের তুলনায় পুলিশ বিক্ষোভ মিছিল ঠেকাতে বেশ তৎপর ছিল। পুলিশের উপস্থিতিও ছিল বেশী ও মারমূখী।

বিক্ষোভ মিছিলে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র ফয়জুল করিম ময়ুন, সহ-সভাপতি এম এ মুকিত, সহ-সভাপতি আশিক মোশাররফ, সহ-সভাপতি বদরুল আলম, যুগ্ম সম্পাদক মো.হেলু মিয়া, যুগ্ম সম্পাদক ফয়সল আহমেদসহ অনেকেই।

জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি ও সাবেক পৌর মেয়র ফয়জুল করিম ময়ুন বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করার জন্য আমরা সকাল থেকেই নেতাকর্মীরা সবাই জড়ো হয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশ এতো মারমূখী ছিলো। পুলিশের লাঠিচার্জ করে নেতাকর্মীদের দাঁড়াতেই দেয়নি। এক পর্যায়ে আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর পুলিশ আটক করে পরে ছেড়ে দেয়।

ময়ুন বলেন, এভাবে পুলিশকে ব্যবহার করে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন ঠেকানো যাবে না। বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিটি এখন জনদাবিতে পরিণত হয়েছে। তাই দেশবাসীর এক দাবি ৭৫ বয়সী গণতন্ত্রের মা সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া যেনো অবিলম্বে মুক্তি পান।

এমআইএ/জেডএস

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও