পুঁজিবাজারের লেনদেন ৪০০ কোটি টাকার নিচে

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ এপ্রিল ২০১৮ | ৬ বৈশাখ ১৪২৫

পুঁজিবাজারের লেনদেন ৪০০ কোটি টাকার নিচে

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:৪৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০১৮

print
পুঁজিবাজারের লেনদেন ৪০০ কোটি টাকার নিচে

টানা পাঁচ কার্যদিবসে ধারাবাহিক পতন শেষে ঘুরে দাঁড়িয়েছে সূচক। তবে বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক লেনদেন কমেছে। দিনশেষে ডিএসইর লেনদেন ৪০০ কোটি টাকার নিচে নেমে এসেছে।

এদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) লেনদেনে ব্যাপক পতন হয়েছে। এদিন সিএসইর সার্বিক লেনদেন কমেছে ১০ কোটি টাকা। ডিএসই ও সিএসইর বাজার পর্যালোচনায় এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানি ও ফান্ডগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ১০৭টির, দর কমেছে ১৬৫টির ও দর অপরিবর্তিত ছিল ৬২টি প্রতিষ্ঠানের। এসময় ডিএসইতে ৯ কোটি ২৮ লাখ ১৬ হাজার ১৬২টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

টাকার অংকে এদিন ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩৮১ কোটি ৫১ লাখ টাকা। এর আগের কার্যদিবসে (বুধবার) ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৪৩৯ কোটি ৩০ লাখ টাকা।

দিনশেষে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ৬.৮৭ পয়েন্ট বেড়ে ৬১৭৯.৭২ পয়েন্টে স্থিতি পায়। এসময় ডিএস-৩০ সূচক ৬.৭৪ পয়েন্ট ও ডিএসইএস সূচক ৩.৫৮ পয়েন্ট বেড়েছে।

লেনদেন শেষে টার্নওভার তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে স্কয়ার ফার্মা। এসময় কোম্পানিটির ২৩ কোটি ৯৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। টার্নওভারে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল ইফাদ অটোস, কোম্পানিটির ১৯ কোটি ৯১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৩ কোটি ৩৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মধ্যে দিয়ে টার্নওভারের তৃতীয় অবস্থানে ছিল প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল।

এছাড়াও টার্নওভার তালিকায় ছিল- আমরা নেটওয়ার্ক, ন্যাশনাল টিউবস, বিডি থাই, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ইউনাইটেড পাওয়ার, সিটি ব্যাংক ও ইসলামী ব্যাংক।

এদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন হওয়া ২৩৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দর বেড়েছে ৬৯টির, দর কমেছে ১২৬টির ও দর অপরিবর্তিত ছিল ৩৯টি প্রতিষ্ঠানের। এসময় সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২০ কোটি ৯২ লাখ টাকার।

লেনদেন শেষে সিএসই’র প্রধান মূল্যসূচক সিএসইএক্স কমেছে ০.৩৩ পয়েন্ট। এসময় সিএসইতে টার্নওভার তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট। কোম্পানিটির ২ কোটি ৩১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

জেডএস/এএল

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad