অনিয়মের দায়ে ড্রাগন সোয়েটার ও এম সিকিউরিটিজকে ৪০ লাখ টাকা জরিমানা

ঢাকা, শুক্রবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৮ | ১৩ বৈশাখ ১৪২৫

অনিয়মের দায়ে ড্রাগন সোয়েটার ও এম সিকিউরিটিজকে ৪০ লাখ টাকা জরিমানা

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৯:০৩ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১০, ২০১৮

print
অনিয়মের দায়ে ড্রাগন সোয়েটার ও এম সিকিউরিটিজকে ৪০ লাখ টাকা জরিমানা

পুঁজিবাজারের বস্ত্র খাতের ড্রাগন সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং লিমিটেড ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ট্রেক হোল্ডার এম সিকিউরিটিজকে জরিমানা করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। অনিয়মের দায়ে উভয় প্রতিষ্ঠানকে পৃথক পৃথক ভাবে ৪০ লাখ টাকা জরিমানা করে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা। মঙ্গলবার বিএসইসি’র ৬২৩তম কমিশন সভায় উভয় প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়।

জানা যায়, ড্রাগন সোয়েটার মোট আইপিও ফান্ডের ৫৩.৬২ শতাংশ নগদ ব্যয় করেছে, কিন্তু তা খরচ হিসাবে আর্থিক বিবরণীতে প্রদর্শন করেনি। বুকস অব একাউন্টস সঠিক ভাবে সংরক্ষণ না করায় তাদের আর্থিক বিবরণীতে সঠিক ও যথাযথ তথ্য প্রতিফলিত না হওয়ার মাধ্যমে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স, ১৯৬৯ এর ১৮ ধারার লঙ্ঘন করায় কোম্পানিটি আইপিও’র সম্পতি পাতের প্যারা ৮ এর লঙ্ঘন করেছে। তাই সিকিউরিটিজ আইন অমান্য করায় কোম্পানিটিকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে।

এছাড়া ডিএসই’র ৪৪নং ট্রেক হোল্ডার এম সিকিউরিটিজ কনসোলিডেটেড কাস্টমার একাউন্টে ঘাটতি রাখা, ক্যাশ হিসাবে মার্জিন ঋণ সুবিধা প্রদান করা, ব্যালেন্স না থাকার পরেও কর্মচারীদের আত্মীয়দের অর্থ প্রদান করায় ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বিএসইসি জানায়, এম সিকিউরিটিজ বেশ কিছু আইন লঙ্ঘন করেছে। এর মধ্যে রয়েছে-

ক) সমন্বিত গ্রাহক হিসাব এ ঘাটতির মাধ্যমে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ রুলস, ১৯৮৭ এবং সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (স্টক ডিলার, স্টক-ব্রোকার ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা, ২০০০ এর বিধি ১১; দ্বিতীয় তফসিল-এর আচরণ বিধি ১ ও চ লঙ্ঘন করেছে।

খ) সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (স্টক ডিলার, স্টক-ব্রোকার ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা, ২০০০ এর দ্বিতীয় তফসিল এর আচরণবিধি ১ এর লঙ্ঘন করেছে।

গ) ক্যাশ হিসাবে মার্জিন ঋণ সুবিধা প্রদান করার মাধ্যমে মার্জিন রুলস, ১৯৯৯ এর লঙ্ঘন করেছে।

ঘ) পর্যাপ্ত ব্যালেন্স না থাকা সত্ত্বেও কর্মচারীদের আত্মীয়দের অর্থ প্রদান করার মাধ্যমে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (স্টক ডিলার, স্টক-ব্রোকার ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা, ২০০০ এর বিধি ১১ এবং দ্বিতীয় তফসিল এর আচরণবিধি ১ ভঙ্গ করেছে।

ঙ) জেড ক্যাটাগরির শেয়ারে বিনিয়োগকারীদের ঋণ প্রদানের মাধ্যমে কমিশনের নির্দেশনার লঙ্ঘন করেছে।

চ) হিসাব খোলার ফরম যথাযথভাবে পূরণ ছাড়াই সংরক্ষণ করার মাধ্যমে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ রুলস, ১৯৮৭ এবং সিডিবিএল এর আইন লঙ্ঘন করেছে।

জেডএস/এসবি

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad