ডিএসইর ৮৬ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের দর কমেছে

ঢাকা, রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১১ ফাল্গুন ১৪২৬

ডিএসইর ৮৬ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের দর কমেছে

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১২:৩৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১০, ২০২০

ডিএসইর ৮৬ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের দর কমেছে

পুঁজিবাজার উন্নয়নে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের সাথে বৈঠকের পর টানা ৫ দিনের দর পতন দেখেছে বিনিয়োগকারীরা। অব্যাহত দর পতনে সপ্তাহের ব্যবধানে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ৮৬.৩৫ শতাংশ শেয়ার ও ইউনিটের দর কমেছে।

ডিএসই’র সপ্তাহিক বাজার পর্যালোচনায় এ তথ্য জানা গেছে।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, সমাপ্ত সপ্তাহে ডিএসইতে ১ হাজার ৫৭৭ কোটি ১২ লাখ ৯৬ হাজার ৮৪ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসময় ডিএসইতে ৫ কার্যদিবস লেনদেন হয়েছে। এর আগের সপ্তাহে ৪ কার্যদিবসে ডিএসইতে ১ হাজার ৩০২ কোটি ৮৯ লাখ ৪০ হাজার ৭৩১ টাকার  শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছিল। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই’র লেনদেন বেড়েছে  ২১.০৫ শতাংশ।

গত সপ্তাহে ডিএসইতে দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে ৩১৫ কোটি ৪২ লাখ টাকা। এর আগের সপ্তাহে ডিএসইতে দৈনিক গড় লেনদেন হয়েছে ৩২৫ কোটি ৭২ লাখ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে গড় লেনদেন কমেছে ৩.১৬ শতাংশ।

সদ্য সমাপ্ত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ৩৫৯টি কোম্পানি ও ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৩৪টির, দর কমেছে ৩১০টির ও দর অপরিবর্তিত ছিল ১৩টি প্রতিষ্ঠানের। এর আগের সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া কোম্পানি ও ফান্ডগুলোর ২৩২টির দর বেড়েছিল। ওই সময় দর কমেছিল ৮৬টির ও দর অপরিবর্তিত ছিল ৩৮টি প্রতিষ্ঠানের।

৮৬ শতাংশ কোম্পানির দর পতনে সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই’র মূল্যসূচকের ব্যাপক পতন হয়েছে। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই’র সার্বিক মূল্যসূচক কমেছে ২৬১.৯০ পয়েন্ট। সপ্তাহের শুরুতে ডিএসই’র সার্বিক মূল্যসূচক ছিল ৪৪৫৯ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে তা ৪১৯৭ পয়েন্টে স্থিতি পেয়েছে। এসময় ব্লু-চিপ খ্যাত ডিএস-৩০ মূল্যসূচক ৯৯.৭৫ পয়েন্ট কমেছে।

সদ্য সমাপ্ত সপ্তাহে নতুন কোম্পানির লেনদেন শুরু হওয়ায় ‘এন’ ক্যাটাগরির শেয়ার লেনদেনে ব্যাপক উল্লম্ফন হয়েছে। গত সপ্তাহে ‘এন’ ক্যাটাগরির শেয়ারের উপর ভিত্তি করে ডিএসইতে ১০.৩৭ শতাংশ বা ১৬৩ কোটি ৫২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যদিও আগের সপ্তাহে ‘এন’ ক্যাটাগরির শেয়ারের মাত্র ৬৫ কোটি ৭৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

এদিকে, ‘এ’ ক্যাটাগরির শেয়ারের উপর ভর করে গত সপ্তাহে ডিএসই’র সর্বমোট লেনদেনের ৭৪.৩৫ শতাংশ লেনদেন হয়েছে। গত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির শেয়ারের ১ হাজার ১৭২ কোটি ৫৭ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে।

জেডএস/

 

অর্থনীতি : আরও পড়ুন

আরও