তারল্য সংকটে পুঁজিবাজারে অব্যাহত পতন

ঢাকা, শনিবার, ২৩ জুন ২০১৮ | ৯ আষাঢ় ১৪২৫

তারল্য সংকটে পুঁজিবাজারে অব্যাহত পতন

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৫:০৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৮

print
তারল্য সংকটে পুঁজিবাজারে অব্যাহত পতন

বিনিয়োগকারীদের নিষ্ক্রিয়তায় টানা চতুর্থ কার্যদিবসে কমেছে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক মূল্য সূচক। পাশাপাশি লেনদেন মন্দা অব্যাহত রয়েছে উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে।

বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ব্যাংকিং খাতে তারল্য সংকট দেখা দেওয়ায় এর প্রভাব পড়েছে পুঁজিবাজারে। পুঁজিবাজারের প্রতিষ্ঠানিক ও বড় বিনিয়োগকারীদের নিষ্ক্রিয়তায় সার্বিক লেনদেন ও সূচকে মন্থরতা দেখা দিয়েছে। লেনদেন মন্দার নেপথ্যে রয়েছে তারল্য সংকট। এদিকে, তারল্য সংকটের পাশাপাশি রাজনৈতিক অঙ্গনে অস্থিতিশীলতার আশঙ্কা দর পতনকে ত্বরান্বিত করছে।

পুঁজিবাজারের বর্তমান পরিস্থিতি প্রসঙ্গে অধ্যাপক আবু আহমেদ পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ডিএসই’র কৌশলগত বিনিয়োগকারী হিসাবে সাংহাই ও সেনজেন স্টক এক্সচেঞ্জ আসবে নাকি ভারতের ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জ আসবে-এমন বির্তকে পুঁজিবাজারে ভারসম্য নষ্ট করার চেষ্ঠা চলেছে গত কয়েক দিন। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে বাজারে তারল্য সংকট ও বিনিয়োগকারীদের অনাস্থা দর পতনের কারণ।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, মঙ্গলবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) লেনদেন হওয়া কোম্পানি ও ফান্ডগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ৯০টির, দর কমেছে ১৯১টির ও দর অপরিবর্তিত ছিল ৫৫টি প্রতিষ্ঠানের। এসময় ডিএসইতে ৯ কোটি ৯৯ লাখ ১৪ হাজার ৮৯৯টি শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

দিনশেষে ডিএসইতে ৩৯১ কোটি ৪৩ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এর আগের কার্যদিবসে ডিএসইতে ৩৭৭ কোটি ১৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

এসময় ডিএসই’র সার্বিক মূল্য সূচক আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৩১.২১ পয়েন্ট কমে ৫৯০৯ পয়েন্টে স্থিতি পেয়েছে। এসময় শরীয়াহ্ ভিত্তিক কোম্পানিগুলোর মূল্য সূচক কমেছে ১০.৪২ পয়েন্ট ও ডিএস-৩০ সূচক বেড়েছে ১৫.৬৬ পয়েন্ট।

লেনদেন শেষে টার্নওভার তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে ইউনিক হোটেল। এসময় কোম্পানিটির ২৭ কোটি ৯২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। টার্নওভারে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল গ্রামীণফোন, কোম্পানিটির ২০ কোটি ৫৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৪ কোটি ৪০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মধ্যে দিয়ে টার্নওভারের তৃতীয় অবস্থানে উঠে এসেছে স্কয়ার ফার্মা।

টার্নওভার তালিকায় থাকা অন্যান্য কোম্পানিগুলো হলো- লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, ফু-ওয়াং ফুড, বেক্সিমকো ফার্মা, সিভিও পেট্রো, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ, মুন্নু সিরামিক ও ফার্মা এইড।

এদিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) লেনদেন হওয়া ২৩০টি কোম্পানি ও ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৬৭টির, দর কমেছে ১৩১টির ও দর অপরিবর্তিত ছিল ৩১টি প্রতিষ্ঠানের। এসময় সিএসইতে ৩০ কোটি টাকার শেয়ার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

দিনশেষে সিএসই’র সার্বিক মূল্য সূচক কমেছে ৬৪.৫৪ পয়েন্ট। এদিন সিএসইতে টার্নওভার তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে গ্রামীণফোন। কোম্পানিটির ২৫ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

জেডএস/

 
.




আলোচিত সংবাদ