অসুস্থ মাকে ছাদ থেকে ফেলে খুন করলেন অধ্যাপক!

ঢাকা, বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮ | ১২ বৈশাখ ১৪২৫

অসুস্থ মাকে ছাদ থেকে ফেলে খুন করলেন অধ্যাপক!

পরিবর্তন ডেস্ক ৮:৫২ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ০৬, ২০১৮

print
অসুস্থ মাকে ছাদ থেকে ফেলে খুন করলেন অধ্যাপক!

নিজের মাকে ছাদ থেকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে হত্যা করেছেন এক অধ্যাপক। পরে মায়ের মৃত্যু দুর্ঘটনা বা আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করেন তিনি।

রাজকোট পুলিশ বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, জেরার মুখে ভেঙে পড়ে নিজের মাকে খুনের কথা স্বীকার করেন সন্দীপ নাথওয়ানি (৩৬) নামে ওই অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর। স্থানীয় একটি ফার্মেসি কলেজের শিক্ষক তিনি।

পুলিশ জানায়, ঘটনা গত বছর ২৯ সেপ্টেম্বরের। সন্দীপের মা জয়শ্রীবেন(৬৪) বেশ কিছুদিন অসুস্থ ছিলেন। তার মৃত্যুর পরে নাথওয়ানি পরিবার দাবি করে, মাথার অসুখে ভুগছিলেন বৃদ্ধা। ছাদে উঠে টাল সামলাতে না পেরে পড়ে যান। কিংবা আত্মহত্যাও করে থাকতে পারেন।

কিন্তু এক বেনামি চিঠিতে মোড় ঘুরে যায় তদন্তের। চিঠিতে নাথওয়ানিদের বাড়ির সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখার পরামর্শ ছিল।

এলাকার ডিসিপি করঞ্জরাজ বাঘেলা জানিয়েছেন, দেখা যাচ্ছে, সন্দীপই ধরে ধরে মাকে ছাদে নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু নামল একা। কিছুক্ষণ পরেই একজন ছুটে এসে তাকে বৃদ্ধার পড়ে যাওয়ার খবর দেন। সন্দীপ এমন ভান করছে যেন কিছুই জানে না।

পুলিশের দাবি, প্রথমে সন্দীপ খুনের কথা কিছুতেই স্বীকার করেননি।

জানিয়েছিলেন, মা প্রার্থনা করবেন, তাই তিনি তাকে ছাদে নিয়ে গিয়েছিলেন। মা তাকে পানি আনতে বলায় নিচে নামেন তিনি। তাই তার পড়ে যাওয়ার কথা জানতেই পারেনি। কিন্তু সাক্ষ্য-প্রমাণ সবই ধীরে ধীরে সন্দীপের বিরুদ্ধে যেতে থাকে।

ছাদ থেকে তিনি মায়ের জুতো পরে সেদিন কেন নেমেছিলেন, তার উত্তর দিতে পারেননি সন্দীপ।

বাঘেলার কথায়, ‘বৃদ্ধা কিছুদিন ধরে মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণের সমস্যায় ভুগছিলেন। শৌচালয় যেতেও সাহায্যের প্রয়োজন হচ্ছিল। সবদিক খতিয়ে দেখে আমাদের সন্দেহ বাড়ে।’

বাঘেলা জানান, জেরার মুখে ভেঙে পড়েন সন্দীপ। বলেন, মায়ের অসুখ নিয়ে তিনি ও তার স্ত্রী তিতিবিরক্ত হয়ে পড়ছিলেন। ছোট বোনের বিয়ে দেওয়া নিয়েও পরিবারে অশান্তি লেগেছিল। তাই নিজের মাকে তিনিই ধাক্কা দিয়ে মেরে ফেলেন।

খুনের মামলায় সন্দীপকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সূত্র: আনন্দবাজার।

বিএইচ/

 
.




আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad