ইউরোপ ফেরত ছেলের ভাইরাসে মায়ের মৃত্যু
Back to Top

ঢাকা, শনিবার, ৪ এপ্রিল ২০২০ | ২১ চৈত্র ১৪২৬

ইউরোপ ফেরত ছেলের ভাইরাসে মায়ের মৃত্যু

পরিবর্তন ডটকম ১:৪৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৪, ২০২০

ইউরোপ ফেরত ছেলের ভাইরাসে মায়ের মৃত্যু

করোনাভাইরাসে ভারতে আরেকজনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। ইউরোপ ফেরত সন্তানের মাধ্যমে তার দেহে ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছিল।

সেই ভাইরাসে দিল্লির বাসিন্দা ৬৮ বছর বয়সী ওই মা শুক্রবার মারা যান বলে জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া।

এ নিয়ে ভারতে দুজনের মৃত্যু ঘটলো কভিড-১৯ রোগে। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮২।

ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, ‘৬৮ বছর বয়সী ওই নারী পশ্চিম দিল্লির বাসিন্দা। তার মৃত্যুর কারণ ডায়াবেটিস ও হাইপারটেনশন। তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন।’

তিনি নিজে বিদেশে না গেলেও তার ছেলে সম্প্রতি ইতালি ও সুইজারল্যান্ড ঘুরে দেশে ফিরেছিলেন। পরে তার দেহে নভেল করোনাভাইরাস ধরা পড়ে, যা থেকে মায়ের দেহেও ছড়ায়।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, গত ৫ থেকে ২২ ফেব্রুয়ারির মধ্যে ইতালি ও সুইজারল্যান্ড ভ্রমণ করেছিলেন ওই নারীর ছেলে। ২৩ ফেব্রুয়ারি দেশে ফেরার পর কয়েকদিন পর তার জ্বর আসে, সঙ্গে কাশিও ছিল। গত ৭ মার্চ তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ছেলের পর মায়েরও জ্বর এলে তাকেও ভর্তি করা হয় হাসপাতালে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, ওই নারীর ডায়াবেটিস ও হাইপারটেনশন ছিল। ইনফ্লুয়েঞ্জা হওয়ার পর ৯ মার্চ তার অবস্থার অবনতি ঘটে, তখন তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়।

দিল্লির রাজ্য সরকার জানিয়েছে, ওই নারীর মৃত্যুর পর তাদের বাড়ির আশপাশের অন্তত ৫০টি ঘরের বাসিন্দাদের এখন পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

নভেল করোনাভাইরাসে ভারতে প্রথম মৃত্যু ঘটে গত সোমবার। কর্নাটকের ওই ব্যক্তির বয়স ছিল ৭৬ বছর।

ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের মোট সংখ্যা ৮২ জন বলে জানিয়েছেন। এর মধ্যে দিল্লির সাতজন, যার একজনের মৃত্যু হলো।

এছাড়া কেরালায় ১৯ জন, মহারাষ্ট্রে ১৪ জন, উত্তর প্রদেশে ১০ জন, কর্নাটকে ছয়জন কভিড-১৯ রোগী পাওয়া গেছে। হরিয়ানায় ১৭ জনের দেহে করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে, তাদের সবাই বিদেশি।

ওএস/এইচআর

 

আন্তর্জাতিক: আরও পড়ুন

আরও