আতঙ্কে কাঁপছে ভারত, বন্ধ বাংলাদেশের সাথে যোগাযোগও
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০২০ | ২৬ চৈত্র ১৪২৬

আতঙ্কে কাঁপছে ভারত, বন্ধ বাংলাদেশের সাথে যোগাযোগও

পরিবর্তন ডেস্ক ৯:০১ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০২০

আতঙ্কে কাঁপছে ভারত, বন্ধ বাংলাদেশের সাথে যোগাযোগও

একজনের মৃত্যু নিশ্চিত হতেই ভারতে ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাসের আতঙ্ক। রাজধানী দিল্লিতে জারি করা হয়েছে হাই অ্যালার্ট। অনেক রাজ্যে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে স্কুল-কলেজ। স্থগিত করা হয়েছে আইপিএল। বন্ধ রাখা হয়েছে বাংলাদেশ-ভারত যোগাযোগ ব্যবস্থাও।

বন্ধ ভারত-বাংলাদেশ যোগাযোগ

করোনা সংক্রমণের প্রভাব পড়েছে ভারত-বাংলাদেশ যোগাযোগ ব্যবস্থাতেও। আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত দু’দেশের মধ্যে ট্রেন ও বাস যোগাযোগ সম্পূর্ণ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে দু’দেশ।

আক্রান্ত বেড়ে ৮১

দেশটির আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮১-এ। শুক্রবার বিকেলে এই তথ্য দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

স্কুল-কলেজ বন্ধ

এক মাসের জন্য স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে একাধিক রাজ্য। দিল্লির সঙ্গে যোগ হয়েছে বিহার, ঝাড়খণ্ড এবং ছত্তিশগড়। তিন রাজ্যেই এক মাসের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এছাড়াও উত্তরপ্রদেশ, কেরালা এবং ওড়িশায় বিধানসভার অধিবেশন স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে।

দিল্লিতে জরুরি সতর্কতা

প্রাথমিক স্কুলগুলো আগেই ছুটি দিয়ে দেওয়া হয়েছিল। করোনা আতঙ্কে এ বার ৩১ মার্চ পর্যন্ত সমস্ত স্কুল-কলেজ বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে দিল্লির প্রশাসন। তার সঙ্গে জারি করা হয়েছে ‘এমার্জেন্সি অ্যালার্ট’।

দিল্লির উপ মুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসৌদিয়া জানিয়েছিলেন, দিল্লিতে কোনও আইপিএল ম্যাচ হবে না। অন্যান্য খেলাও স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে সব সরকারি সুইমিং পুল।

বন্ধ আইপিএল

করোনা আতঙ্কে দু’সপ্তাহের জন্য পিছিয়ে গেল ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখা হচ্ছে এ বারের টুর্নামেন্ট। ইন্ডিয়ান ওপেন গল্ফ-এর এবারের প্রতিযোগিতা বাতিল করা হয়েছে।

বিয়েও বন্ধ কর্নাটকে

করোনা সংক্রমণ নিয়ে দেশে একমাত্র মৃত্যু হয়েছে কর্নাটকেই। তার জেরে রাজ্যে চূড়ান্ত সতর্কতা ও একাধিক নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য প্রশাসন। বাতিল করা হয়েছে স্বাস্থ্য দফতরের সব কর্মীর ছুটি। কলবুর্গি (মৃত্যু হয়েছে এই জেলাতেই) জেলার সমস্ত স্কুল কলেজ বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে। তবে পরীক্ষা পিছাচ্ছে না। রাজ্যের সমস্ত শপিং মল, সিনেমা হল, বিয়ের অনুষ্ঠানসহ যে কোনও ধরনের জমায়েতের উপর রাশ টানতে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পা।

কলকাতার স্কুলে সতর্কতা

শিক্ষার্থীদের স্কুলে পাঠানোর প্রয়োজন নেই বলে শুক্রবার বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানাল সাউথ পয়েন্ট স্কুল। পরীক্ষা ছাড়া পঠনপাঠন ও অন্যান্য কর্মসূচি বাতিল করা হয়েছে। অভিভাবকদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, অত্যন্ত প্রয়োজন ছাড়া শিক্ষার্থীদের স্কুলে পাঠানোর দরকার নেই।

মমতার সতর্কবার্তা

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শুক্রবার নেতাজি ইন্ডোরে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু করোনার জেরে তার সেই কর্মসূচি কাটছাঁট করা হয়। তিনি রাজ্যবাসীকে সতর্ক করে বলেছেন, করোনা সন্দেহ হলেই বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে গিয়ে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করান।

যদিও একই সঙ্গে বলেছেন, হাঁচি কাশি হলেই যে করোনা, এমনটা নয়।

এসবি

 

আন্তর্জাতিক: আরও পড়ুন

আরও