রাতারাতি বদলি দিল্লির ‘রক্ষাকর্তা’ সেই বিচারপতি
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই ২০২০ | ১৮ আষাঢ় ১৪২৭

রাতারাতি বদলি দিল্লির ‘রক্ষাকর্তা’ সেই বিচারপতি

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:১১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০

রাতারাতি বদলি দিল্লির ‘রক্ষাকর্তা’ সেই বিচারপতি
কেন্দ্র, দিল্লি সরকার ও পুলিশকে তুলোধনা করা দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি এস মুরলিধরকে বদলি করা হয়েছে।

রাতারাতি তাকে পঞ্জাব-হরিয়ানা হাইকোর্টে বদলি করা হল।

মঙ্গলবার মাঝরাতে নিজের বাসভবনে শুনানি ডেকে আহতদের নিরাপদে হাসপাতালে পৌঁছে দিতে পুলিশকে নির্দেশ দেন তিনি।

ঘটনাচক্রে তার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই কলেজিয়ামের নির্দেশ মেনে বিচারপতি মুরলিধরকে বদলি করে দিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

ভারতের জি নিউজ ১৮ এর প্রতিবেদনে বলা হয়, দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতিদের র‌্যাঙ্কিংয়ে তিনি ছিলেন তৃতীয় সর্বোচ্চ বিচারপতি৷

বুধবার গভীর রাতে বিচারপতি এস মুরলীধরের বদলির নির্দেশিকা জারি করে কেন্দ্র৷

গত ১২ ফেব্রুয়ারিই তাকে সুপ্রিম কোর্টের কলেজিয়াম বদলির জন্য প্রস্তাব দেয়৷ সরকারের নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, ‘সংবিধানের ২২২ নম্বর ধারার ১ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুযায়ী, দেশের প্রধানবিচারপতির সঙ্গে পরামর্শ করে রাষ্ট্রপতি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি এস মুরলীধরকে পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে বদলি করা হল৷’

বিচারপতি মুরলীধরের বদলির সিদ্ধান্তের গত সপ্তাহেই নিন্দা করে বার অ্যাসোসিয়েশন৷ সুপ্রিম কোর্টের কলেজিয়াম এই বদলির প্রস্তাব তুলে নিক বলেও দাবি করে বার অ্যাসোসিয়েশন৷

বুধবার দিল্লি হিংসা নিয়ে মামলার শুনানিতে বিচারপতি মুরলীধর বলেন, ‘আরেকটা ১৯৮৪ হতে দেওয়া যাবে না৷’ কেন্দ্র, দিল্লি সরকারকে একসঙ্গে মিলে দিল্লিতে শান্তি ফেরানোর নির্দেশ দেন তিনি৷ একই সঙ্গে ভরা এজলাসে বিজেপি নেতা কপিল মিশ্রর উস্কানিমূলক বক্তৃতার ভিডিও চালানোরও নির্দেশ দেন৷ দিল্লি পুলিশকে বিজেপি নেতা কপিল মিশ্র, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর, বিজেপি নেতা অভয় ভার্মা ও প্রবেশ ভার্মার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করারও নির্দেশ দেন৷

এসবি

 

: আরও পড়ুন

আরও