লাদেনের মতো পাকিস্তানের বিরুদ্ধেও পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি ভারতের

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬

লাদেনের মতো পাকিস্তানের বিরুদ্ধেও পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি ভারতের

পরিবর্তন ডেস্ক ১:২১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৬, ২০২০

লাদেনের মতো পাকিস্তানের বিরুদ্ধেও পদক্ষেপের হুঁশিয়ারি ভারতের

৯/১১ হামলার পর সন্ত্রাস দমনে আমেরিকা যেভাবে পাকিস্তানে ঢুকে লাদেনের ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দিয়েছিল, সেই রকম পদক্ষেপই নিতে হবে বলে বৃহস্পতিবার এক অনুষ্ঠানে পাকিস্তানের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন ভারতের প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত।

ভারতের এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যদিও তিনি এ বক্তব্যে পাকিস্তানের নাম নেননি, কিন্তু গত ৩১ ডিসেম্বর প্রতিরক্ষা প্রধান হিসাবে দায়িত্ব গ্রহণের পর জেনারেল রাওয়াতের এই বক্তব্যকে ইসলামাবাদের প্রতি কঠোর বার্তা হিসেবেই ধরা হচ্ছে।  

বিপিন রাওয়াত বলেন, যতদিন কিছু দেশ সন্ত্রাসবাদে মদত দিতে থাকবে ততদিন সন্ত্রাসের বাড়বাড়ন্ত বন্ধ করা যাবে না। এ থেকে বাঁচার একটাই উপায় আছে, যেভাবে ৯/১১ হামলার পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সন্ত্রাসদমনে পদক্ষেপ নিয়েছিল, ঠিক সেইভাবেই পদক্ষেপ নিতে হবে। তবেই একমাত্র সন্ত্রাসবাদকে দমন করা যাবে।

সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের খবর অনুযায়ী, পাকিস্তানকে উদ্দেশ্য করে প্রতিরক্ষা প্রধান আরও বলেন, ‘সন্ত্রাসবাদীদের শিক্ষা দিতে হবে তাই-ই নয়, যারা সন্ত্রাসবাদে মদত দিচ্ছে তাদেরও শিক্ষা দিতে হবে। যে সব দেশ সন্ত্রাসবাদের পৃষ্ঠপোষকতা করছে তাদের বিরুদ্ধেও পদক্ষেপ নিতে হবে।

রাওয়াত বলেন, আমি মনে করি যে ফিনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স (এফএটিএফ) যেভাবে এই ধরণের দেশকে কালো তালিকাভুক্ত করার মতো পদক্ষেপ নিচ্ছে তা অত্যন্ত সময়োপযোগী। প্রয়োজনে এই ধরণের দেশকে কূটনৈতিকভাবে বিচ্ছিন্ন করতে হবে।

২০০৮ সালের ‘২৬/১১’ মুম্বাই সন্ত্রাসী হামলার নেপথ্যের ষড়যন্ত্রকারীদের নিজেদের দেশে আশ্রয় দিয়েছে পাকিস্তান, এই অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরেই করে আসছে ভারত। অনেকটা সেদিকে লক্ষ্য করেও আমেরিকার ৯/১১ হামলাপরবর্তী পাকিস্তান-আফগানিস্তানে দেশটির সামরিক পদক্ষেপের দৃষ্টান্ত এনে পাকিস্তানকে এমন হুঁশিয়ারি দিলেন ভারতের তিন বাহিনীর প্রধান।  

প্রসঙ্গত, ভারতের সেনাবাহিনীর প্রধান থেকে দেশটির প্রতিরক্ষা প্রধান পদে কিছুদিন আগেই দায়িত্ব নিয়েছেন বিপিন রাওয়াত। সেনা, নৌ ও বিমান–এই তিন বাহিনীর মধ্যে সমন্বয় বাড়ানো এবং অস্ত্রশস্ত্র কেনার প্রক্রিয়া স্থির করতেই এই পদ তৈরি করে মোদি সরকার।

প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রধানকে রিপোর্ট করবেন সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও বিমানবাহিনীর তিন প্রধান। “সমান বাহিনীর মধ্যে প্রথম” বলে এই পদকে বর্ণনা করেছে কর্তৃপক্ষ। প্রতিরক্ষাবাহিনীর প্রধান হিসেবে নিরাপত্তা নিয়ে সরাসরি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে যোগাযোগ থাকবে বিপিন রাওয়াতের। এছাড়াও তিনি সব বাহিনীর সর্বোচ্চ প্রধানও থাকবেন।

এমএফ/

 

আন্তর্জাতিক: আরও পড়ুন

আরও