শেষ মুহূর্তে কাশ্মীর সফর বাতিল করলেন ইইউ প্রতিনিধিরা

ঢাকা, সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৪ ফাল্গুন ১৪২৬

শেষ মুহূর্তে কাশ্মীর সফর বাতিল করলেন ইইউ প্রতিনিধিরা

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৪৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ০৯, ২০২০

শেষ মুহূর্তে কাশ্মীর সফর বাতিল করলেন ইইউ প্রতিনিধিরা

শেষ মুহূর্তে ভারত তথা কাশ্মীর সফর বাতিল করলেন ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন (ইইউ) এবং অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধিরা। বৃহস্পতিবার দুই দিনের ভারত সফরে জম্মু ও কাশ্মীরে আসার কথা ছিল তাদের।

এদিন (বৃহস্পতিবার) তাদের জম্মু ও কাশ্মীরে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু শেষ মুহূর্তে এই সফরে না আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে, সাক্ষাৎকার দেওয়া এক সরকারি সূত্র জানিয়েছে, কোনো রকম পাহারা দেওয়া বা গাইডেড ট্যুর করতে রাজি নয় ১৭ জনের ওই প্রতিনিধি দল। ফলে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের কেউ কেউ জানিয়েছেন, তারা এই মুহূর্তে কাশ্মীর সফরে আসতে পারবেন না। বরং পরে তারা আসবেন বলে জানিয়েছেন। শুধু তাই নয়, জম্মু ও কাশ্মীরের মানুষদের কাছে গিয়ে তাদের সঙ্গে কথাও বলবেন বলে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, শুধু জম্মু ও কাশ্মীরের সাধারণ মানুষ নয়, সেখানকার বিশেষ মর্যাদা ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের পর কার্যত এখনও গৃহবন্দী কাশ্মীরের কয়েক শ রাজনীতিক। যার মধ্যে প্রাক্তন তিন জন মুখ্যমন্ত্রীও রয়েছেন। ফারুক আব্দুল্লাহ, ওমর আব্দুল্লাহ এবং মেহবুবা মুফতি এই তিন নেতার সঙ্গেও দেখা করতে চান ১৭ সদস্যের বিদেশী প্রতিনিধিরা।

গত বছরের ৫ আগস্ট প্রতাহার করা হয় জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা ৩৭০ ধারা। বিশেষ এই মর্যাদা হারিয়ে বর্তমানে জম্মু এবং কাশ্মীর কেন্দ্রশাসিত পৃথক দুটি অঞ্চলে পরিণত হয়েছে। যার ফলে উপত্যকার বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার হওয়ার প্রায় তিন মাস পর গত বছর অক্টোবর মাসে জম্মু ও কাশ্মীরে গিয়েছিল ইউরোপীয় ইউনিয়নের প্রতিনিধি দল। সেইবার সাধারণ নাগরিকের সঙ্গে কথা বলতে পেরেছিলেন প্রতিনিধিরা। তবে সবটাই ছিল একটা ‘গাইডেড ট্যুর’। কড়া নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে থেকেই আমজনতার সঙ্গে কথা বলতে হয় তাদের। এবারের সফরেও তেমনটাই হওয়ার কথা ছিল। তবে এত গোপনীয়ভাবে কাশ্মীরের নাগরিকের সঙ্গে কথা বলতে রাজি নন ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং অস্ট্রেলিয়ার প্রতিনিধিরা।

আরপি

 

আন্তর্জাতিক: আরও পড়ুন

আরও