সিএবি-এনআরসি রুখতে আন্দোলনের ডাক মমতার

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২০ | ১৫ মাঘ ১৪২৬

সিএবি-এনআরসি রুখতে আন্দোলনের ডাক মমতার

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:২০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯

সিএবি-এনআরসি রুখতে আন্দোলনের ডাক মমতার

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি) ও জাতীয় নাগরিকপঞ্জি(এসআরসি)র বিরুদ্ধে এবার গণআন্দোলনের ডাক ডাক দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

দেশটির আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়, শুক্রবার দিঘায় সাংবাদিক সম্মেলন করে আগামী রোব ও সোমবার ‘নো এনআরসি’ আন্দোলনের কর্মসূচির কথা জানিয়েছেন মমতা। তিনি আবারও বলেছেন, এ রাজ্যে এনআরসি হবে না। কাউকে কেউ তাড়াতে পারবে না।

ওই আন্দোলনে তিনি নিজেও অংশ নেবেন বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার মধ্যরাতেই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে সই করেছেন রাষ্ট্রপতি। তার পরের দিনই দিঘায় সাংবাদিক সম্মেলনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণা, রোববার (১৫ ডিসেম্বর) রাজ্য জুড়ে ব্লকে ব্লকে ‘নো এনআরসি’ আন্দোলন হবে। সব জেলায় মিছিল করবেন দলের কর্মীরা। তার পরের দিন অর্থাৎ ১৬ ডিসেম্বর কলকাতায় বি আর অম্বেডকর মূর্তির পাদদেশে সমাবেশ করবে তৃণমূল। সেখান থেকে গান্ধী মূর্তি পর্যন্ত মিছিল হবে। তার পর সেই মিছিল যাবে জোড়াসাঁকোয় কবিগুরুর বাড়ি পর্যন্ত। তাতে নেতৃত্ব দেবেন মমতা নিজে।

তৃণমূল নেত্রী মমতা এদিন বলেন, ‘গণতান্ত্রিক ভাবে প্রতিবাদ করুন। আমি নিজেও সেই সব আন্দোলনে যোগ দেব। গায়ের জোরে সিএবি পাস করেছে। কিন্তু বাংলায় এনআরসি করতে দেব না। প্রত্যেক রাজ্যের আলাদা আবেগ আছে, আলাদা বিষয় আছে।’

রাজ্যে এনআরসি করতে দেবেন না বলে ফের এদিন মমতা বলেন, ‘বিজেপি বাংলার পাপ, দেশের অভিশাপ। আসামে ডিটেনশন ক্যাম্প করছে রাজ্য সরকার। সেখানে তাদের দলের সরকার ছিল বলে করতে পেরেছে। এখানে হতে দেব না।’

এনআরসি হলে দেশ থেকে তাড়ানো হবে বলে আশঙ্কা ছড়িয়েছে নানা মহলে। মমতা তাদের আশ্বস্ত করে এদিন বলেন, ‘বিতাড়িত হওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই। আপনারা যেমন আছেন, তেমনই থাকবেন। কেউ তাড়াতে পারবে না। এসব নিয়ে কেউ ভয় পাবেন না।’

বিজেপির পক্ষ থেকে এই সব ‘অপপ্রচার’ চালানো হচ্ছে বলেও এ দিন মন্তব্য করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এসবি

 

দক্ষিণ এশিয়া: আরও পড়ুন

আরও