শ্রীলঙ্কায় দাঙ্গায় মুসলিম নিহত, কারফিউ
Back to Top

ঢাকা, সোমবার, ২৫ মে ২০২০ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

শ্রীলঙ্কায় দাঙ্গায় মুসলিম নিহত, কারফিউ

পরিবর্তন ডেস্ক ১২:২০ অপরাহ্ণ, মে ১৪, ২০১৯

শ্রীলঙ্কায় দাঙ্গায় মুসলিম নিহত, কারফিউ

শ্রীলঙ্কায় মসজিদে হামলার পর সংঘাতে ৪৫ বছর বয়সী এক মুসলিম নিহত হয়েছেন। সোমবারের ওই সংঘাতের পর সারা দেশে কারফিউ জারি করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ইন্ডিয়া টুডে’র খবরে বলা হয়েছে, গত ২১ এপ্রিল ইস্টার সানডেতে গির্জা ও হোটেলে আত্মঘাতী হামলার পর থেকেই দেশটির মুসলিমরা আতেঙ্কে আছেন। অনেক জায়গায় তাদের ওপর হামলা করা হচ্ছে।

বার্তাসংস্থা এএফপিকে এক পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, সর্বশেষ গতকাল সোমবার পুতালাম জেলার একটি মসজিদে হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এরপর মুসলিমদের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ হয়। আহত মুসলিমদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে সেখানে একজনের মৃত্যু হয়।

সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, একদল লোক তাকে নিজের কার্পেটের ওয়ার্কশপে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে। ইস্টার সানডের হামলার পর থেকে এই প্রথম সংঘাতে কারও মৃত্যু হলো।

উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশের মারাউয়িলির এক বাসিন্দা যিনি ছুরিকাহত ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিতে সাহায্য করেছেন, নিহতের নাম মোহাম্মদ আমীর মোহাম্মদ সালি বলে জানিয়েছেন।

এ ঘটনার পর সারা দেশে কারফিউ জারি করা হয়েছে। আর যেসব এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে, সেখানে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশটির মুসলিম অধ্যুষিত অংশগুলোর বাসিন্দারা জানিয়েছেন, উচ্ছৃঙ্খল জনতা দ্বিতীয় দিনের মতো মসজিদগুলোতে হামলা চালিয়েছে, তাদের দোকান ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো তছনছ করেছে।

মসজিদ, দোকান ও যানবাহনে আগুন দেয়ার পর টিভিতে শ্রীলঙ্কার পুলিশ প্রধান চান্দানা বিক্রমারত্নে দাঙ্গাকারীদের দমনে সংশ্লিষ্ট এলাকায় বাড়তি পুলিশ মোতায়েনের নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশ বলছে, একদল সশস্ত্র দুর্বৃত্ত অনেক মুসলিমের বাড়ি ও মসজিদ আগুনে পুড়িয়ে দিয়েছে। তারা হাতে রড, হকিস্টিক নিয়ে সড়কে মহড়া দিয়ে আতঙ্ক তৈরি করছে।

মূলত রাজধানী কলম্বোর উত্তরের তিনটি জেলাতে এই সংঘাত হচ্ছে। কিন্তু, বাড়তি সতর্কতা হিসেবে সারা দেশেই কারফিউ জারি করা হয়েছে।

গত ২১ এপ্রিল কলম্বোর তিনটি গির্জা, তিনটি পাঁচতারকা হোটেলসহ আটটি স্থানে আত্মঘাতী হামলায় ২৫৯ জন নিহত ও ৫ শতাধিক মানুষ আহত হন।

হামলার চার দিন পর আন্তর্জাতিক জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) এই হামলার দায় স্বীকার করে। এরপর থেকেই দেশটিতে মুসলিমদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে আসছে।

সিংহলী বৌদ্ধ প্রধান শ্রীলঙ্কার ২ কোটি ২০ লাখ লোকের মধ্যে প্রায় ১০ শতাংশ মুসলিম রয়েছে।

আইএম

 

: আরও পড়ুন

আরও