এনবিআরের ‘কর বাহাদুর’ ৮৪ পরিবার

ঢাকা, বুধবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৮ | ১০ মাঘ ১৪২৪

এনবিআরের ‘কর বাহাদুর’ ৮৪ পরিবার

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৭:২৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৮, ২০১৭

print
এনবিআরের ‘কর বাহাদুর’ ৮৪ পরিবার

জাতীয় ও জেলা পর্যায়ে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে কর পরিশোধের জন্য প্রথমবারের মতো ৮৪ পরিবারকে ‘কর বাহাদুর’ সম্মাননা প্রদান করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড-এনবিআর। বুধবার শেরেবাংলা নগরে জাতীয় রাজস্ব ভবনে ‘কর বাহাদুর পরিবার ও সেরা করদাতা সম্মাননা’ তুলে দেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এমএ মান্নান। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এতে অন্যদের মধ্যে অর্থ মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. আবদুর রাজ্জাক, অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান, এফবিসিসিআই সভাপতি মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সর্বোচ্চ কর পরিশোধকারী হিসেবে ঢাকা খেকে ১৬ পরিবারকে কর বাহাদুর সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। চট্টগ্রাম থেকে আটটি পরিবারকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়। এছাড়া ৬৪টি জেলার মধ্যে রাঙামাটি ও খাগড়াছড়িতে কোনো কর বাহাদুর পরিবার খুঁজে পাওয়া যায়নি।

ঢাকার ১৬ পরিবারের মধ্যে রয়েছে- খাজা তাজমহল ও তার পরিবার, এবিএম শফিউল আলম ও তার পরিবার, লতিফুর রহমান ও তার পরিবার, সৈয়দ হাসান ইমাম ও তার পরিবার, কুতুব উদ্দিন আহমেদ ও তার পরিবার, আবদুস সালাম মুশের্দী ও তার পরিবার, আবদুল কাদের মোল্লা ও তার পরিবার, হাজী মো. কাউছ মিয়া ও তার পরিবার, সৈয়দ আবুল হোসেন ও তার পরিবার, আবদুল হক ও তার পরিবার, সৈয়দ নূরুল ইসলাম ও তার পরিবার, আহমেদ আকবর সোবহান ও তার পরিবার, একেএম রহমতুল্লাহ ও তার পরিবার, আবদুল মাতলুব আহমেদ ও তার পরিবার।

চট্টগ্রামের আট পরিবার হলো- আলী হোসাইন আকবর আলী ও তার পরিবার, আবুল হাশেম ও তার পরিবার, একেএম শামসুদ্দীন খান ও তার পরিবার, ফরিদ আহমেদ ও তার পরিবার, জোহাইর তাদের আলী ও তার পরিবার, নুরুল ইসলাম বিএসসি ও তার পরিবার, মো. এম জালাল উদ্দিন চৌধুরী ও তার পরিবার, নুর নাহার জামান ও তার পরিবার।

এছাড়া নারায়ণগঞ্জে জসিম উদ্দিন মাসুম ও তার পরিবার, মুন্সীগঞ্জে মজিবুর রহমান ও তার পরিবার, মানিকগঞ্জে সৈয়দ সোহেল ইমাম ও তার পরিবার, গাজীপুরে প্রফেসর আবদুল বারী ও তার পরিবার, টাঙ্গাইলে যুগলপদ শাহা ও তার পরিবার, নরসিংদীতে মাঞ্জু মিয়া ও তার পরিবার, ময়মনসিংহে আব্দুর রশিদ ও তার পরিবার, কিশোরগঞ্জে ভাস্কর কুমার দত্ত ও তার পরিবার, শেরপুরে জয়নাল আবেদীন ও তার পরিবার, নেত্রকোনায় পিযূষ কান্তি ভৌমিক ও তার পরিবার, জামালপুরে মির্জা আযম ও তার পরিবার, ফরিদপুরে রবীন্দ্রনাথ সাহা, রাজবাড়ীতে জিল্লুল হাকিম ও তার পরিবার, গোপালগঞ্জে কাজি শওকত আলী ও তার পরিবার, মাদীপুরে শাহজাহান খান ও তার পরিবার, শরীয়তপুরে ডা. মো. মনিরুজ্জামান ও তার পরিবার, কক্সবাজারে মো. মোস্তফা ও তার পরিবার, বান্দরবানে মাহবুবুর রহমান ও তার পরিবার, সিলেটে ফজলে হাসান ফেরদৌস ও তার পরিবার, মৌলভীবাজারে মতলুব খান ও তার পরিবার, হবিগঞ্জে সুখলাল সূত্রধর ও তার পরিবার, সুনামগঞ্জে আজিজুর রহমান ও তার পরিবার, কুমিল্লায় আফজাল খান ও তার পরিবার, নোয়াখালীতে আবুল খায়ের ও তার পরিবার, লক্ষ্মীপুরে আবু সায়েদ ও তার পরিবার, ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় মো. হেলাল উদ্দিন ও তার পরিবার, চাঁদপুরে আবদুল মান্নান খান ও তার পরিবার, ফেনীতে নুর জাহান বেগম ও তার পরিবার, রাজশাহীতে আবদুল গাফফার ও তার পরিবার, পাবনায় স্যামুয়েল এস চৌধুরী ও তার পরিবার, নাটোরে কাইয়ূম খান ও তার পরিবার, নওগাঁয় শেখ আজাদ হোসেন ও তার পরিবার, চাঁপাইনবগঞ্জে এফ কে এম লুৎফর রহমান ও তার পরিবার. বগুড়া মতিয়ার রহমান ও তার পরিবার, সিরাজগঞ্জে সানোয়ার হোসেন ও তার পরিবার, গাইবান্ধায় আবদুল লতিফ হাক্কানী ও তার পরিবার, জয়পুরহাটে আবদুল হাকিম মন্ডল ও তার পরিবার, রংপুরে মহুবর রহমান ও তার পরিবার, দিনাজপুরে আকিল আহমেদ ও তার পরিবার, ঠাকুরগাঁওয়ে মোকসেদুল আলম ও তার পরিবার, পঞ্চগড়ে শফিক হোসেন ও তার পরিবার, নীলফামারীতে ওহিদুল হক ও তার পরিবার, লালমনিহাটে ফজলুল হক ও তার পরিবার, কুড়িগ্রামে মো. মইজ উদ্দিন ও তার পরিবার, বরিশালে আবদুর রাজ্জাক ও তার পরিবার, ঝালকাঠিতে সালাউদ্দিন আহমেদ ও তার পরিবার, পিরোজপুরে মজিবুর রহমান খালেক ও তার পরিবার, পটুয়াখালীর  মো. শাহজাহান মিয়া ও তার পরিবার, ভোলায় সানা উল্লাহ ও তার পরিবার, বরগুনায় হেনেরা বেগম ও তার পরিবার, খুলনায় এমএম এ সালাম ও তার পরিবার, যশোরে শফিউর রহমান মল্লিক ও তার পরিবার, চুয়াডাঙ্গায় রকিবুল ইসলাম ও তার পরিবার, মাগুরা মো. রজব আলী মজনু ও তার পরিবার, সাতক্ষীরায় গোলাম রব্বানী ও তার পরিবার, নড়াইলে ওয়াহিদুজ্জামান ও তার পরিবার, কুষ্টিয়ায় মজিবর রহমান ও তার পরিবার, ঝিনাইদহে দুলাল কুমার চক্রবর্তী ও তার পরিবার, মেহেরপুরে আবদুস সালাম ও তার পরিবার, বাগেরহাটে মীর শওকত আলী বাদশা ও তার পরিবার।

জেডএস/এমএসআই

print
 
.

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad