ফোর-জি তরঙ্গে আয় হবে ৫৩০০ কোটি টাকা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

ফোর-জি তরঙ্গে আয় হবে ৫৩০০ কোটি টাকা

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১:২১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮

print
ফোর-জি তরঙ্গে আয় হবে ৫৩০০ কোটি টাকা

ফোর-জি সেবা নিলামে ২১০০ ব্যান্ডের প্রতি মেগাহার্টজ বেতার তরঙ্গে ভিত্তি মূল্য ধরা হয়েছে দুই কোটি ৭০ লাখ ডলার।

১৮০০ ব্যান্ডের ভিত্তিমূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে তিন কোটি ডলার। এই দরে ২০ দশমিক ৬ মেগাহার্টজ বেতার তরঙ্গ বিক্রি হবে। এতে ভ্যাটসহ আয় হবে প্রায় পাঁচ হাজার ৩০০ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার ঢাকা ক্লাবে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বারে উপস্থিতিতে শুরু হওয়া তরঙ্গ নিলামে এমনটাই আশা ব্যক্ত করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি।

এই নিলামে অংশ নিয়েছে গ্রামীণফোন ও বাংলালিংক। তবে নিলামে অংশ না নিলেও আগের বেতার তরঙ্গেই আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি এই সেবা প্রদানের লাইসেন্স পাবে সেবা দেয়ার জন্য মনোনীত অপর দুই প্রতিষ্ঠান রবি আজিয়াটা ও রষ্ট্রায়াত্ব মোবাইল অপারেটর টেলিটক।



এর আগে রবিবার নিলামের মহড়ায় বাংলালিংক ২১০০ ব্যান্ড থেকে ১০ মেগাহার্টজ এবং ১৮০০ ব্যান্ড থেকে দুই ভাগে আরো নয় মেগাহার্টজ স্পেকট্রাম নিয়েছে।

অন্যদিকে গ্রামীণফোন শুধু ১৮০০ ব্যান্ডে ১০ মেগাহার্টজ স্পেকট্রাম কেনার মহড়া দিয়েছে। রবি ও টেলিটক বাড়তি কোনো স্পেকট্রাম কিনবে না বলে আগেই বিটিআরসিকে জানিয়েছে।

মোবাইল ফোন অপারেটরদের ১৮০০ ও ২১০০ ব্যান্ডের তরঙ্গ বরাদ্দ দিতে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসি এ নিলামের আয়োজন করে।



কমিশন মূলত তিনটি ব্যান্ডের স্পেকট্রামের জন্যে নিলাম আহবান করলেও ৯০০ ব্যান্ডের স্পেকট্রামের কোনো আগ্রহী ক্রেতা পাওয়া যায়নি। ফলে ওই ব্যান্ডের জন্যে কোনো নিলাম হচ্ছে না। এই স্পেকট্রামের নিলাম হওয়ার পর অপারেটররা তাদের হাতে থাকা বিদ্যমান স্পেকট্রামের প্রযুক্তি নিরপেক্ষতা নিয়ে তবেই ফোরজি সেবা চালু করবে।

অপারেটর সূত্রে জানা গেছে, থ্রি-জির তুলনায় ফোর-জি ইন্টারনেটের গতি হবে কমপক্ষে দ্বিগুণ।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ওপেন সিগন্যালের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে বাংলাদেশে থ্রি-জি ইন্টারনেটের গড় গতি ৩ দশমিক ৭৫ এমবিপিএস (মেগাবিটস প্রতি সেকেন্ড)। আর বিশ্বে ফোর-জি প্রযুক্তির গড় গতি ১৬ দশমিক ৬ এমবিপিএস। ভারতে ফোর-জির গড় গতি বর্তমানে ৬ দশমিক ১৩ এমবিপিএস। পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ডের মতো দেশে ফোর-জির গতি ৯ থেকে ১৪ এমবিপিএসের মধ্যে। ফোর-জি গতিতে বিশ্বে সবচেয়ে এগিয়ে থাকা দুই দেশ হলো সিঙ্গাপুর ও দক্ষিণ কোরিয়া। বিশ্বজুড়ে ৩৮ লাখ স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর ৫ হাজার কোটি তথ্য-উপাত্ত বিশ্লেষণের মাধ্যমে একেকটি দেশের ফোর-জি ইন্টারনেটের গতি নির্ধারণ করে ওপেন সিগন্যাল।

এএম/

 
.

Best Electronics Products



আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad