খাঁটি মধু চেনার উপায়

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ২০১৮ | ৭ আষাঢ় ১৪২৫

খাঁটি মধু চেনার উপায়

পরিবর্তন ডেস্ক ২:৫৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৪, ২০১৮

print
খাঁটি মধু চেনার উপায়

মধুর গুণের কথা কমবেশি আমরা সবাই জানি। তাই আর আলাদাভাবে বলার কিছু নেই। স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ও শরীর গঠনে মধুর কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু সেই মধু যদি ভেজাল হয়, তাহলে! একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে ভেজাল মধুতে এমন কিছু উপাদান থাকে, যা দীর্ঘদিন ধরে শরীরে প্রবেশ করলে দেহের ওজন বেড়ে যায়, সেই সঙ্গে হার্ট অ্যাটাক এবং ডায়াবেটিসের মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়।

তাছাড়া প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে আপনি সুস্বাস্থ্যের জন্য যে মধুটা খাবেন সেটা খাঁটি নাকি ভেজাল, আপনি কিন্তু জানেন না। তাই খাওয়ার আগে জেনে নেওয়া উচিৎ মধু খাঁটি নাকি ভেজাল। সেটা কীভাবে জানবেন? মধু খাঁটি কিনা বোঝার কয়েকটা বিশেষ পদ্ধতি আছে, সেগুলোকে সঠিকভাবে মেনে চললে, আপনার খাঁটি মধু চিনে নিতে কোনো অসুবিধা হবে না। তাই আজ জেনে নিন খাঁটি মধু চিনে নেয়ার কিছু উপায়।

আপনি বুড়ো আঙুলের দ্বারা মধু খাঁটি কিনা পরীক্ষা করতে পারেন। মধু কেনার সময় হাতের বুড়ো আঙুলের ওপর অল্প একটু মধু নিয়ে দেখবেন সেটা পানির মতো ছড়িয়ে যাচ্ছে নাকি ঘন অবস্থায় এক জায়গায় রয়েছে। যদি দেখেন মধুটা ছড়িয়ে যাচ্ছে তবে সেটা কখনই খাঁটি মধু নয়।

একটা পাত্রের মধ্যে কিছুটা মধু ঢেলে, তারপর তার মধ্যে খানিকটা পানি ঢেলে দেখবেন মধুটা পানির মধ্যে মিশে যাচ্ছে নাকি আগের মতোই ঘন হয়ে এক জায়গায় রয়েছে। মধু খাঁটি হলে সেটা এক জায়গায় স্থির থাকবে।

অনেক সময় খাঁটি মধু জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করা হয়, তাই একটা দেশলাই কাঠি নিয়ে সেটাকে মধুর মধ্যে ডুবিয়ে তুলে নিয়ে দেশলাইটাকে আবার জ্বালানোর চেষ্টা করুন, যদি সেটা জ্বলে যায় তবে বুঝবেন সেটা খাঁটি মধু।

মধু পরীক্ষা করার আরো একটা উপায় হল, একটা পাত্রে কিছুটা মধু নিয়ে সেটা ভালো করে আঁচে ফোটান। যদি দেখেন মধু ধীরে ধীরে ঘন হয়ে যাচ্ছে তবে বুঝবেন ওই মধু খাঁটি।

মধু কেনার পর তা থেকে এক চামচ নিয়ে এক গ্লাস পানিতে মিশিয়ে দিন। যদি দেখেন মধুটা একেবারে পানিতে মিশে গেছে তাহলে বুঝবেল আপনি ভেজাল মধু কিনেছেন। কারণ বিশুদ্ধ মধু পানিতে মিশে যায় না।

অল্প করে মধু নিয়ে পানির ওপর কয়েক ড্রপ ফেলে দিন। তারপর সেই পানিতেই কয়েক ড্রপ ভিনিগার মেশান। এরপর যদি দেখেন ফোমের মতো কিছু তৈরি হয়েছে, তাহলে বুঝবেন আপনার ভাগ্য খারাপ। কারণ আপনার কেনা মধুতে রয়েছে ভেজাল।

এক চামচ মধু নিয়ে একবার নাড়িয়ে দেখুন তো কী হয়। যদি দেখেন মধুটা চামচ থেকে পড়ে যাচ্ছে, তাহলে বুঝবেন ভেজাল মধু কিনেছেন আপনি। কারণ বিশুদ্ধ মধু কখনোই এমনভাবে চামচ থেকে পড়ে যাবে না। নকল মধুতে পানির পরিমাণ বেশি থাকে, যে কারণে চামচটা একটু নাড়াতেই সেটা পড়ে যায়। অপর দিকে বিশুদ্ধ মধু অনেক বেশি থকথকে হয়। তাই সহজে পড়তে চায় না।

অল্প পরিমাণ মধুর সঙ্গে এক ড্রপ আয়োডিন মেশান। যদি দেখেন মিশ্রণটা নীল রঙের হয়ে যাচ্ছে, তাহলে বুঝবেন মধুটা নকল। আসলে ভেজাল মধুতে স্টার্চ খুব বেশি পরিমাণে থাকে, যে কারণে এমনটা হয়।

মধু আসল না নকল তা বোঝার আরেকটি সহজ উপায় হচ্ছে একটা পাউরুটির টুকরো নিয়ে এক চামচ মধুর মধ্যে মেশান। যদি দেখেন পাউরুটিটা শক্ত হয়ে গেছে তাহলে বুঝবেন মধুটা আসল, তাতে কোনো ক্ষতিকর উপাদান নেই। কারণ নকল মধুতে জলের পরিমাণ বেশি থাকে, যে কারণে পাউরুটি ডুবিয়ে রাখলে তা শক্ত না হয়ে গিয়ে উল্টো নরম হয়ে যাবে।

ইসি/বিএইচ/

 
.




আলোচিত সংবাদ