২০৩০ সালের মধ্যে শতভাগ পরিচ্ছন্ন রান্নাঘর তৈরির উদ্যোগ
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০২০ | ২৬ চৈত্র ১৪২৬

২০৩০ সালের মধ্যে শতভাগ পরিচ্ছন্ন রান্নাঘর তৈরির উদ্যোগ

নীলফামারী প্রতিনিধি ৩:৪৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ১০, ২০২০

২০৩০ সালের মধ্যে শতভাগ পরিচ্ছন্ন রান্নাঘর তৈরির উদ্যোগ

নীলফামারীতে ‘২০৩০ সালের মধ্যে শতভাগ ক্লিন কুকিংয়ের লক্ষ্য অর্জনে করণীয় বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় এর আয়োজন করে হাউসহোল্ড এনার্জি প্ল্যাটফর্ম প্রোগ্রাম ইন বাংলাদেশ এবং টেকসই নবায়নযোগ্য জ্বালানি উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন হাউসহোল্ড এনার্জি প্ল্যাটফর্ম প্রোগ্রাম ইন বাংলাদেশএর প্রকল্প পরিচালক(যুগ্ম সচিব) সালিমা জাহান।

জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক(উপ-সচিব) গোলাম সরওয়ার ই কায়নাত বক্তব্য দেন।

এতে প্রকল্পের উদ্দেশ্য উপস্থাপন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) আজাহারুল ইসলাম।

বক্তব্য দেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক আব্দুল মোত্তালেব সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম।

সেমিনারে জানানো হয় সনাতন পদ্ধতির চুলোয় রান্নার ফলে স্বাস্থ্যের যেমন ক্ষতি হচ্ছে, তেমনি অপচয় হচ্ছে সময় এবং ব্যয়ও হচ্ছে বেশি।

আধুনিক পদ্ধতিতে উন্নতমানের চুলা ব্যবহারের ফলে সবদিক থেকে উপকৃত হওয়া যায়। যার কারণে সরকার দেশে ২০৩০ সালের মধ্যে পরিচ্ছন্ন রান্না ঘর প্রস্তুত করণের কাজ শুরু করেছে।

প্রধান অতিথি সালিমা জাহান বলেন, বাসা বাড়ি থেকে শুরু করে হোটেল রেস্তোরায় এমনকি সর্বত্র ক্লিন কুকিংবাস্তবায়ন করা হবে। এক্ষেত্রে চুলা উৎপাদন কারী প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারকে সহযোগিতা করছে।

তিনি বলেন, সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল(এসডিজি) অর্জনে ২০৩০সালের মধ্যেই যাতে আমরা এটি বাস্তবায়ন করতে পারি এজন্য সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে।

সাশ্রয়ে জ্বালানি সমৃদ্ধ আগামী, উন্নত চুলা উন্নত জীবনশ্লোগানে অনুষ্ঠিত এই সেমিনারে গৃহিনী, ব্যবসায়ী, এনজিও কর্মী, ধর্মীয় নেতা, গণামাধ্যম কর্মীসহ সরকারী বিভিন্ন দফতর প্রধানগণ অংশগ্রহণ করেন।

এনএ/এএসটি

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও