“তাকে অদৃশ্য ইঙ্গিতে পুলিশ ‘ক্রসফায়ারে’ নিহত করল”

ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে ২০১৮ | ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

“তাকে অদৃশ্য ইঙ্গিতে পুলিশ ‘ক্রসফায়ারে’ নিহত করল”

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি ১:৩২ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ১৯, ২০১৮

print
“তাকে অদৃশ্য ইঙ্গিতে পুলিশ ‘ক্রসফায়ারে’ নিহত করল”

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা পরিষদে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় ঠাকুরগাঁও-২ আসনের সংসদ সদস্য দবিরুল ইসলাম অভিযোগ করেছেন, তাঁর বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত ডাকাতকে পুলিশ অদৃশ্য ইঙ্গিতে ‘ক্রসফায়ার’ দিয়ে হত্যা করেছে।

বুধবার বিকাল ৪টায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল মান্নান এর সভাপতিত্বে আয়োজিত জেলা প্রশাসক মো. আখতারুজ্জামানের সাতে জনপ্রতিনিধি, সরকারী কর্মকর্তা ও গণ্যমান্য ব্যক্তিগণের মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় অন্যান্যে মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সফিকুল ইসলাম, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ আলী, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান প্রবীর কুমার রায়, ভাইস চেয়ারম্যান যথাক্রমে আব্দুস সামাদ পান্না, নাজিয়া ইমদাদসহ সকল ইউপি চেয়ারম্যান, সকল সরকারী কর্মকর্তা, স্কুল কলেজের প্রধানসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। মত বিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক সকলের কাছে পরামর্শ শুনেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি দবিরুল ইসলাম বলেন, “বালিয়াডাঙ্গীতে আইনশৃংখলা ভাল হলেও গত ১৩ মার্চ আমার বাড়িতে ডাকাতির ঘটনাটি আমাকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে। ওই ঘটনায় আমার স্ত্রী মারা গেছেন। আমার বাড়ির ডাকাতি ঘটনায় জড়িতদের সঙ্গে পুলিশ এখন পর্যন্ত দেখা করতে দেয়নি। ডাকাতির ঘটনায় যে ডাকাত সাক্ষী ছিল তাকে অদৃশ্য ইঙ্গিতে পুলিশ ‘ক্রসফায়ারে’ নিহত করল। এটি আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। আমাকে হেয় করা।”

গত ৩ এপ্রিল রাত ৩-৪ টার মধ্যে ঠাকুরগাঁও-দিনাজপুর মহাসড়কের ২৯ মাইল নামক এলাকায় পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে একজন অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি মারা যায়। নিহত ব্যক্তিকে ডাকাত দাবি করে পুলিশ সুপার ফরহাত আহম্মদ ওইদিন সংবাদ সম্মেলন অভিযোগ করে বলেন, নিহত ডাকাত সদস্য ঠাকুরগাঁও-২ আসনের এমপি দবিরুল ইসলামের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় সরাসরি জড়িত ছিল।

পুলিশ সুপার আরো জানান, ১৪/১৫ জনের একদল ডাকাত ঠাকুরগাঁও-দিনাজপুর মহাসড়কের হাড়িপুকুর নামক স্থানে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল।এমন সংবাদ পেয়ে ডিবি পুলিশের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত দলের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টাগুলি ছুড়লে ডাকাতরা পিছু হটে। পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় অজ্ঞাতনামা (৩২) একজন ডাকাতকে উদ্ধার করে। তাকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সভায় জেলা প্রশাসক বলেন, “দেশে খাদ্য অভাব নাই বললেই চলে, তাই সরকার এ বছর গম ক্রয় না করে ধান ক্রয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এ জেলা খাদ্যে রপ্তানি করার মতো জেলা। বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার অনেক সমস্যার কথা শুনলাম। আমি আমার জায়গা থেকে এ সমস্যাগুলো সমাধানের চেষ্টা কবর।”

বিআইবি/এএস

 
.

Best Electronics Products



আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad