নীলফামারীতে ই-সেবায় শ্রেষ্ঠ বিআরটিএ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ জুন ২০১৮ | ৭ আষাঢ় ১৪২৫

নীলফামারীতে ই-সেবায় শ্রেষ্ঠ বিআরটিএ

নীলফামারী প্রতিনিধি ১১:২১ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৮

print
নীলফামারীতে ই-সেবায় শ্রেষ্ঠ বিআরটিএ

সম্মাননা ও ক্রেস্ট প্রদানের মধ্যদিয়ে নীলফামারীতে তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা শেষ হয়েছে সোমবার রাতে। জেলা শহরের সরকারী হাই স্কুল মাঠে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রংপুর বিভাগীয় অতিরিক্ত কমিশনার (সার্বিক) মিনু শীল।

সমাপনী অনুষ্ঠানে ৯টি ক্যাটাগরিতে ৪০টি প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান মঞ্চায়ন করেন শিল্পীরা।



শ্রেষ্ঠ স্টল হিসেবে সরকারী কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র ও সিভিল সার্জন অফিস, ই-সেবায় বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথিউরিটি (বিআরটিএ) নীলফামারী, ওয়েব পোর্টালে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর নীলফামারী উপ-পরিচালকের কার্যালয় ও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয় নীলফামারী ছাড়াও ডিজিটাল সেন্টারে নীলফামারী সদর উপজেলার পঞ্চপুকুর ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার নির্বাচিত হয়।

সমাপনী অনুষ্ঠানে ই-সেবায় সম্মাননা ও ক্রেস্ট গ্রহণ করেন বিআরটিএ নীলফামারী কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ইথোয়াইনু চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে নীলফামারী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ দেবী প্রসাদ রায়, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল বাশার মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, নীলফামারী পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মসফিকুল ইসলাম রিন্টু বক্তব্য দেন। এছাড়া অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে নীলফামারী সদর উপজেলার পঞ্চপুকুর ইউনিয়নের ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা আজাহারুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন।



এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ খালেদ রহীম।

দফতরটির মোটরযান পরিদর্শক তাজুল ইসলাম জানান, আমরা তিনদিনে মেলা প্রাঙ্গণ থেকে তাৎক্ষনিক ভাবে তিন’শ জনকে সেবা দিয়েছি। রেজিস্ট্রেশন, ড্রাইভিং লাইসেন্স, শিক্ষা নবিশ ড্রাইভিং লাইসেন্স, সার্টিফিটেক, ফিঙ্গার প্রিন্ট গ্রহণ করা হয় স্টলে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্পের সহযোগীতায় শনিবার বিকেলে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে মেলা শুরু হয়। এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মহা-পরিচালক খলিলুর রহমান।

নীলফামারী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক শাহিনুর আলম জানান, মেলায় ৫টি প্যাভিলিয়নে ৭৬টি স্টল স্থান পেয়েছিলো। আগত দর্শকরা ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবহার ছাড়াও প্রতিদিনই সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশনার পাশাপাশি বিভিন্ন প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয় মেলা প্রাঙ্গণে।

এনএ/এসএফ

 
.




আলোচিত সংবাদ