মাদকাসক্ত স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূর আত্মহত্যা

ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ | ১ পৌষ ১৪২৪

মাদকাসক্ত স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূর আত্মহত্যা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি ১০:০৫ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৭

print
মাদকাসক্ত স্বামীর নির্যাতনে গৃহবধূর আত্মহত্যা

মাদকাসক্ত স্বামীর অমানুষিক নির্যাতন সইতে না পেরে সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে তাকমিনা খাতুন (৩০) নামের এক গৃহবধূ বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন। তবে নিহতের পরিবারের অভিযোগ যৌতুক মামলা তুলে না নেওয়ায় মারপিট ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ায় সে আত্মহত্যা করেছে।

.

বুধবার বিকেলে নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকেই ওই স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে। নিহত তাকমিনা খাতুন রায়গঞ্জ উপজেলার চান্দাইকোনা ইউনিয়নের মোজাফপুর গ্রামের ফজল খানের মেয়ে।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, রায়গঞ্জ উপজেলার চান্দাইকোনা ইউনিয়নের মোজাফপুর (মজুপুর) গ্রামের ফজল খানের মেয়ের সাথে একই ইউনিয়নের পূর্ব পাইকড়া গ্রামের মতি তালুকদারের ছেলে রাশিদুল ইসলামের সাথে প্রায় ১৬ বছর আগে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর কিছুদিন ভালোই চলে তাদের সংসার। এরপর তাদের সংসার জীবনে সাগর ও শিহাব নামের দুইটি পুত্র সন্তান জন্মগ্রহণ করে। স্ত্রী-সন্তান থাকা সত্ত্বেও রাশিদুল পরপর দুটি বিয়ে করেন। এতে প্রায় তাদের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়া হতো। এতকিছু সহ্য করার পরও মাদকাসক্ত স্বামী রাশিদুল ইসলাম গৃহবধূ তাকমিনার পরিবারের কাছে ৫০ হাজার টাকা যৌতুক হিসেবে দাবী করেন। দাবীকৃত টাকা না দেয়ায় মাঝেমধ্যেই রাশিদুল ও তার পরিবারের লোকজন তাকমিনাকে মারপিট করত। স্বামীর নির্যাতন ও শ্বশুর-শাশুড়ির অপমান সইতে না পেরে তাকমিনা মঙ্গলবার রাতেই বিষপান করেন। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় পরিবারের লোকজন তাকে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার ভোরে সে মারা যায়।

নিহতের পিতা ফজল খান অভিযোগ করে বলেন, ‘বিয়ে করার পর থেকেই রাশিদুল ইসলাম মদ, গাঁজা সেবন করতো। মাঝেমধ্যেই সে তাকমিনাকে যৌতুকের টাকার জন্য আমাদের বাড়িতে পাঠাত। কিন্তু আমরা তার দাবীকৃত টাকা না দিতে পারায় মাঝেমধ্যে আমার মেয়েকে স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ি অমানসিকভাবে নির্যাতন করতো।’

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। বিকেল সাড়ে ৩টায় ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় সিরাজগঞ্জ সদর থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আইকে/জেআই

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad