ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে চাকরি, ৫ পুলিশ কনস্টেবলকে কারাদন্ড
Back to Top

ঢাকা, রবিবার, ৫ এপ্রিল ২০২০ | ২২ চৈত্র ১৪২৬

ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে চাকরি, ৫ পুলিশ কনস্টেবলকে কারাদন্ড

নাটোর প্রতিনিধি ৬:৫৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২০

ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদে চাকরি, ৫ পুলিশ কনস্টেবলকে কারাদন্ড

নাটোরে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ দেখিয়ে চাকরি নেওয়ার অপরাধে ৫ পুলিশ কনস্টেবলকে আড়াই বছর করে কারাদন্ড ও সাথে পাঁচ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছে আদালত। জরিমানা অনাদায়ে আরও ৩ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে নাটোরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক খোরশেদ আলম এই রায় দেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হলেন, নাটোরের লালপুরের বিলমাড়ীয়া গ্রামের আব্দুস সামাদের ছেলে সাজেদুর রহমান সাজিদ (২৩), আব্দুস সাত্তার ওরফে দেলুর ছেলে জুবায়ের ওরফে পলাশ, নলডাঙ্গা উপজেলার কাঠোয়াগাড়ি গ্রামের বাবলু মোল্লার ছেলে সাইদুর রহমান (২২) হাবিবুর রহমানের ছেলে আমির আলী (২৩) ও গুরুদাসপুর উপজেলার হাসমারি গ্রামের মৃত মজিবর মন্ডলের ছেলে রফিকুল ইসলাম।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২০১১ সালে জাল মুক্তিযোদ্ধা সনদ প্রদর্শন করে দণ্ডপ্রাপ্তরা পুলিশের কনস্টেবল পদে নিয়োগ নেয়। পরে ট্রেনিংয়ের সময় পুলিশি ভেটিংয়ে তাদের জাল সনদের তথ্য পাওয়া যায়।

এরপর নাটোর পুলিশ লাইনের আর ওয়াই মামুন ওই ৫ জনের বিরুদ্ধে নাটোর সদর থানায় মামলা দায়ের করেন (মামলা নাম্বার-৩২/১২)।

মামলা দায়েরের পর তৎক্ষণাৎ তাদেরকে বরখাস্ত করে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর অভিযুক্তরা আদালতের মাধ্যমে জামিনে বের হয়। দীর্ঘদিন মামলার স্বাক্ষ্য প্রমাণ গ্রহণ চলে।

এরপর আদালতের বিচারক আজ মামলার শুনানির দিন ধার্য করেন। নির্ধারিত দিনে নাটোরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ১ এর বিচারক খোরশেদ আলম এর আদালতে হাজিরা দিতে আসলে আদালতের বিচারক সাজা ঘোষণা করে তাদেরকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এমএফ/

 

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও