গৃহবধূকে নির্যাতন করে চুল কেটে দিল স্বামী

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১৫ ফাল্গুন ১৪২৬

গৃহবধূকে নির্যাতন করে চুল কেটে দিল স্বামী

পাবনা প্রতিনিধি ৪:৩২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৪, ২০২০

গৃহবধূকে নির্যাতন করে চুল কেটে দিল স্বামী

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার খানমরিচ ইউনিয়নের সুলতানপুর গ্রামের খাদিজা খাতুন (২৫) নামে এক গৃহবধূর চুল কেটে দিয়েছেন তার স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ি।

বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

মারধর করে তাকে একটি ঘরে আটকে রাখা হয়। ভোরে সে কৌশলে পালিয়ে প্রতিবেশী এক মামার বাড়িতে আশ্রয় নেয়। পরের শুক্রবার ওই গৃহবধূ নিজে ভাঙ্গা থানায় লিখিত অভিযোগ দেন।

উপজেলার সুলতানপুর গ্রামে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ওই গৃহবধূর হাত-পা ও মুখ বেঁধে তার চুল কেটে দেয়া হয়।

খাদিজা ওই গ্রামের শাহেদ ফকিরের স্ত্রী। এসময় ওই গৃহবধূকে প্রচণ্ড মারধর করা হয়। পরে বাড়ি থেকে পালিয়ে পাশের মামার বাড়িতে আশ্রয় নেয় সে। এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ শুক্রবার ভাঙ্গুড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

নির্যাতিতা খালেদার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, পারিবারিক অভাব-অনটন নিয়ে মাদকাসক্ত স্বামী শাহেদের সাথে প্রায়ই ঝগড়া হয় দুই সন্তানের জননী খাদিজা খাতুনের। এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় খাদিজাকে স্বামী শাহেদ, শ্বশুর মালেক ফকির ও শাশুড়ি শাহিদা খাতুন প্রচণ্ড মারধর করে। এর জের ধরে রাত ৩টার দিকে খাদিজার শোয়ার ঘরে ঢুকে তার স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ি হাত-পা ও মুখ গামছা দিয়ে বেঁধে ফেলে। এসময় তারা খাদিজাকে প্রচণ্ড মারধর করে এবং কাঁচি দিয়ে চুল কেটে দেয়। পরে এ ঘটনা কারো কাছে প্রকাশ করবে না শর্তে খাদিজাকে ছেড়ে দেয় স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ি।

ভোরে সুযোগ বুঝে খাদিজা বাড়ি থেকে পালিয়ে পাশেই তার মামা আবুল কালামের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে খাদিজা তার মামাকে সাথে নিয়ে ভাঙ্গুড়া থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দেন।

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা অভিযোগ পাওয়ার কথা নিশ্চিত করে জানান, আসামিদের ধরতে পুলিশ এরই মধ্যে অভিযান শুরু করেছে। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যে অভিযুক্তরা আটক হবে।

এইচআর

 

সমগ্রবাংলা: আরও পড়ুন

আরও