জবাবদিহিতা নিশ্চিতে পাবনায় জনতার মুখোমুখি উপজেলা চেয়ারম্যান

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩০ জানুয়ারি ২০২০ | ১৬ মাঘ ১৪২৬

জবাবদিহিতা নিশ্চিতে পাবনায় জনতার মুখোমুখি উপজেলা চেয়ারম্যান

পাবনা প্রতিনিধি ৮:৩২ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯

জবাবদিহিতা নিশ্চিতে পাবনায় জনতার মুখোমুখি উপজেলা চেয়ারম্যান

তৃণমূল মানুষের কাছে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে পাবনার আটঘড়িয়ায় অনুষ্ঠিত হয়েছে জনতার মুখোমুখি উপজেলা পরিষদ শীর্ষক এক ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠান।

বুধবার দুপুরে আটঘরিয়া উপজেলা পরিষদ অডিটরিয়ামে স্থানীয় উপজেলা পরিষদ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

সেখানে উপজেলা চেয়ারম্যান তানভীর ইসলাম উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ এবং পরিষদের সকল ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে মুখোমুখি হন স্থানীয় সাধারণ জনতার।

পরিষদের চেয়ারম্যান গত এক সপ্তাহ ধরে গোপন বাক্সে, ফেসবুক এবং সরসরি জনতার অভিযোগ গ্রহণ করেন ও জবাব দেন।

স্থানীয়রা কৃষি, স্বাস্থ্য সংকট, অবৈধ দখলসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম সরকারি প্রকল্পে দুর্নীতি, বঞ্চনা, হয়রানির নানা চিত্র তুলে ধরে সরাসরি প্রশ্ন করেন উপজেলা প্রশাসন ও পরিষদকে। নিজ অবস্থান থেকে বক্তব্য তুলে ধরে সমাধানের আশ্বাস দেন উপজেলা চেয়ারম্যান।

উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান তানভীর ইসলাম বলেন, আমি চুরি করার জন্য চেয়ারে বসিনি। বছর বাঁধা কামলার মত আমাকে আপনাদের সেবক জানবেন। যদি দুর্নীতি অনিয়মের সাথে আমার সংশ্লিষ্টতা পান নির্দ্বিধায় বিদায় করে দেবেন। আমি নিজে দুর্নীতি করি না। কাউকে করতেও দেব না।

উপজেলা চেয়ারম্যান বলেন, জনপ্রতিনিধি কিংবা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী কেউই জবাবদিহিতার ঊর্ধ্বে নয়। আটঘরিয়ার মানুষ দেশের সর্বকনিষ্ঠ উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে আমাকে নির্বাচিত করেছে। তাদের ভোট ও আস্থার প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে শতভাগ স্বচ্ছতার সাথে উপজেলা প্রশাসন পরিচালনা করতেই এই জবাবদিহিতা কার্যক্রম। মুজিববর্ষের প্রতি সম্মান জানিয়ে শুরু করা এই জবাবদিহিতার আওতায় উপজেলা প্রশাসনের সাথে সংশ্লিষ্ট সবাইকে যুক্ত করা হবে।

উপজেলা চেয়ারম্যান আরো জানান, প্রতি ছয়মাস অন্তর উপজেলা পরিষদের কার্যক্রম মূল্যায়নে জনতার মুখোমুখি হবেন তিনি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আটঘরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা. ফোয়ারা খাতুন, সহকারী কমিশনার ভূমি উম্মে তাবাস্সুম, উপজেলা কৃষি অফিসার রোকসানা কামরুন্নাহার, আটঘরিয়া থানার ওসি ( তদন্ত) আসিফ সিদ্দীকী ।

আরজে/জেডএস

 

রাজশাহী: আরও পড়ুন

আরও