রান্নার উপকরণ দিয়েই রান্নাঘর ঝকঝকে রাখার উপায়

ঢাকা, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ | ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

রান্নার উপকরণ দিয়েই রান্নাঘর ঝকঝকে রাখার উপায়

পরিবর্তন ডেস্ক ৩:৪১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০১৭

print
রান্নার উপকরণ দিয়েই রান্নাঘর ঝকঝকে রাখার উপায়

যেখানে রোজকার খাবার তৈরি হচ্ছে, সেই জায়গাটা পরিষ্কার রাখা অতি আবশ্যক। তবে রান্নাঘর পরিষ্কার করতে অনেকেই হিমশিম খান। সাদা টাইলসের উপর হলুদের দাগ কিংবা ডাস্টবিনে জমে থাকা ময়লার উপর যখন ফ্রুট ফ্লাই ভনভন করে, তখন সকলেই চোখে সর্ষেফুল দেখেন। কীভাবে রান্নাঘরের প্রত্যেকটা কোণ ঝাঁ চকচকে রাখবেন বা কীভাবে জেদি দাগ তুলবেন? রান্নাঘর পরিষ্কার করতে অনেকেই হিমশিম খান। জেনে নিন রান্নার সরঞ্জাম দিয়েই রান্নাঘর পরিষ্কার রাখার কিছু উপায়।

.

ফ্রুট ফ্লাইয়ের উৎপাত লেগেই থাকে। শুধু ডাস্টবিন কেন, ফলের ঝুড়িতে কিছুদিন ফল রেখে দিলেই তার চারপাশে এরা ঘিরে থাকে। এদের হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার বেশ কিছু উপায় রয়েছে। এক বাটি ভিনিগারে তিন ফোঁটা লিক্যুইড সোপ ঢেলে ঝুড়ির কাছে আলগা রেখে দিন। ভিনিগারের গন্ধ ফ্রুট ফ্লাইদের খুব পছন্দ। তারা বাটির দিকে ধেয়ে যাবেই। কিন্তু লিক্যুইড সোপ থাকায় একবার বাটিতে বসলে আর উড়ে যেতে পারবে না।

কাচের গ্লাস বা পাত্র ভেঙে মাটিতে পড়লে বেজায় বিপদ হয়। কিছুতেই সব টুকরো পরিষ্কার করা যায় না। শুধু ঝাঁটা দিয়ে পরিষ্কার না করে শেষে কয়েকটা পাউরুটি দিয়ে জায়গাটা ঘষে মুছে নিন। খুব সূক্ষ্ণ টুকরোও পাউরুটিতে আটকে যাবে।

কাঁসার বা পিতলের বাসন মাজা বেশ কষ্টকর। কিছুতেই দাগ উঠতে চায় না। সাধারণ বাসন ধোওয়ার সাবানের বদলে তেঁতুল দিয়ে পরিষ্কার করে দেখতে পারেন। আরেকটা ভালো উপায় টমেটো সস। একটুখানি টমেটো সস মাখিয়ে একটা সুতির কাপড় দিয়ে কিছুক্ষণ ঘষুন। তারপর ধুয়ে ফেলুন।

রান্নাঘরের দেওয়ালে দু’ধরনের দাগ থাকে। এক, যেগুলো তেলতেলে হয়। দুই, যেগুলো জলে পরিষ্কার করা যায়। ধরুন ওয়াইনের দাগ, মশা মারার দাগ, কাসুন্দি বা সসের দাগ হলে টিস্যু পেপার ভিজিয়ে ঘষে তুলতে হবে। যদি রান্নার তেল-কালি থেকে দাগ হয়ে যায়, তাহলে ঈষদুষ্ণ জলে অল্প বাসন মাজার লিক্যুইড সোপ কিছুক্ষণ জায়গাটায় মাখিয়ে রাখুন। পরে কাপড় দিয়ে পরিষ্কার করুন। তবে যে কোনো দাগই যত দীর্ঘ দিন রেখে দেবেন, তত তুলতে কষ্ট হবে। তাই দু’সপ্তাহ অন্তর দেওয়াল পরিষ্কার করার চেষ্টা করুন। না হলে, মাসে অন্তত একদিন।

অনেক শৌখিন মানুষের রান্নাঘরের মেঝেতে উডেন টাইলস থাকে। কিন্তু কাঠের জিনিস পরিষ্কার রাখা আরও মুশকিল। একটা সহজ উপায় এক বালতি জলে দশ ভাগের এক ভাগ সাদা ভিনিগার মেশান। তারপর সেই জলে ঘর মুছে নিন।

অনেকেই লোহা বা কাস্ট আয়রনের বাসন ব্যবহার করেন। কিন্তু এগুলো পরিষ্কার করা খুব একটা সহজ নয়। সাধারণভাবে না ধুয়ে এই পাত্রে দু’টেবিলচামচ তেল গরম করুন। ফুটে গেলে কয়েক চিমটে লবণ দিন। তারপর সাঁড়াশির সাহায্যে একটা পেপার টাওয়েল নিয়ে পাত্রটা ঘষে ঘষে পরিষ্কার করে ফেলুন। শেষে পাত্রের কোটিংয়ের জায়গাটা যদি চটলা উঠে যায় তাহলে ভেজিটেবিল অয়েল বুলিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

রান্নাঘরের টাইলস পরিষ্কার করতে সবচেয়ে সমস্যায় পড়তে হয়। চিন্তা করবেন না। এরও সহজ উপায় রয়েছে। এক বালতি জলে এক কাপ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন। তারপর একটা স্পঞ্জ দিয়ে পরিষ্কার করুন। দেখবেন অনেক জেদি দাগও কেমন ভ্যানিশ হয়ে গিয়েছে!

রান্নাঘরের সিঙ্ক বা অন্য কোনো অংশ থেকে যদি আঁশটে গন্ধ বেড়োয় তাহলে জায়গাটায় লেবুর রস আর বরফ দিয়ে ঘষতে হবে। আরো ভালো হয় যদি ভিনিগার জমিয়ে বরফ তৈরি করে। ফ্রিজের ভিতরে একটা খাবারের গন্ধ যাতে অন্য খাবারের সঙ্গে না মিশে যায় বা ফ্রিজে অন্যরকম গন্ধ না হয়ে যায়, তার জন্য একটা পাত্রে একটু বেকিং সোডা রেখে দিন। প্রতি তিন মাস অন্তর পাত্রে নতুন করে বেকিং সোডা ঢালবেন।

ইসি/

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad