দুবাই

ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ এপ্রিল ২০১৭ | ১৫ বৈশাখ ১৪২৪

দুবাই

ফরহাদ চৌধুরী রোহিত ২:০১ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২১, ২০১৭

print
দুবাই

মানুষ মনে করে, দুবাই শহর অনেক অনেক সুখের একটা জায়গা, আসলে তা নয়। কারো জন্য সুখ, কারো জন্য দুঃখ। এখানে কেউ হয়ত ভালো চাকরি পায়, কেউ হয়ত ভালো চাকরি পায় নাই। তবে দুবাইর কাহিনী শোনার পর কোন ছেলে মেয়ের ইচ্ছা করবে না এই দেশে আসার জন্য।

আমি যেহেতু দুবাইয়ে আছি, তাই দু্বাইর কথাই বলি। ছবি তোলার কারণে এখানকার অনেক কিছু জানতে পেরেছি। ছবি তুলতে না গেলে হয়ত জানতে পারতাম না এসব  কাহিনী।

দুবাইতে এমন অনেক জায়গা আছে যেখানে মানুষ সন্ধ্যা হওয়ার আগে খাওয়া দাওয়া করে নেয়। কারণ সেখানে বিদ্যুৎ নেই। দ্বিতীয় কথা হলো- এমন কিছু জায়গা আছে যেখানে মানুষ রাতে কম্বল ভিজিয়ে গায়ে জড়িয়ে ঘুমায় গরমের জন্য। আর যারা উট চরায়, উটকে খাবার দেয়, উটের যত্ন নেয় এরা বলতে গেলে জীবনে কোন দিন শহর দেখে নাই। এদের মধ্যে কেউ যখন বালু থেকে মূল শহরে আসে তখন তারা সবকিছু দেখেই অবাক হয়ে যায়! তারা ভাবে- কি দেখছি এটা, কোথায় আসলাম। অথচ- তারা দুবাইর মধ্যেই আছে, ইউনাইটেড ইমারত শহরের মধ্যেই আছে কিন্তু শহর দেখলে তারা অবাক হয়ে যায়। কারণ প্লেন থেকে নামার পর তাদের নিয়ে গেছে খেজুর বাগানের কাজে অথবা উট চরানোর জন্য। যেখানে মানুষ বালু আর বালু ছাড়া কিছুই দেখে না। যেদিকে তাকায় সেদিকেই বালু।

দুবাইতে এমন একটা জায়গা আছে যেখানে এই উটের জন্য বিভিন্ন ফিল্ম এর শুটিং হয়। শাহরুখ খানের 'রইস' ফিল্মের শুটিংও হয়েছে ঐ জায়গায়। ঐ জায়গাতে বালুর এত উত্তাপ যা বলে বোঝানো যাবে না। চারিদিকে শুধু বালু আর বালু। অনেক সুন্দর জায়গা- অনেক অনেক মানুষ সেখানে ঘুরতে যায়। তবে যারা সেখানে কাজ করে বা পরিশ্রম করে বা উট চরায় তারাই জানে জীবন কত কষ্টের। কষ্ট আর এই উটগুলোর ছবি নিয়েছি আমি 'সাফারি' নামক জায়গা থেকে।  এখানকার অনেক কাহিনী আছে যা এখানকার নিরাপত্তার জন্য লিখতে পারছি না। তবে একটাই কথা বলব- যে কেউ দুবাইতে আসলে জেনে-শুনে সবকিছু খোঁজখবর নিয়ে এখানে আসবেন। শুধু দুবাই না, পৃথিবীর যে কোন দেশে যাওয়ার আগে খোঁজখবর নিয়ে যাওয়া উচিৎ। না জেনে জায়গা জমি বিক্রি করে পাড়ি জমালে কিন্তু মহা বিপদে পড়তে পারেন।

যারা দেশের বাড়িতে বিনা কারণে হাজার হাজার টাকা খরচ করতেন, তারা এখানে এসে উটের চরানোর কাজ পেয়েছে। উট চরানোর জন্য, যেখানে মরুভূমির বালু ছাড়া কিছুই নাই। দুবাইতে এমন অনেক জায়গা আছে, যেখানে এক গ্লাস পানির জন্য মাইলের পর মাইল হাঁটতে হয়!

লেখক : ব্লগার

লেখকদের উন্মুক্ত প্লাটফর্ম হিসেবে পরিচালিত হচ্ছে মুক্তকথা বিভাগটি। পরিবর্তনের সম্পাদকীয় নীতি এ লেখাগুলোতে সরাসরি প্রতিফলিত হয় না।
print
 

আলোচিত সংবাদ