অষ্টাদশ শতকের ছবিতে স্মার্ট ফোন নিয়ে রহস্য!

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর ২০১৭ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

অষ্টাদশ শতকের ছবিতে স্মার্ট ফোন নিয়ে রহস্য!

কে বি আনিস ৮:৩৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০১৭

print
অষ্টাদশ শতকের ছবিতে স্মার্ট ফোন নিয়ে রহস্য!

টাইম ট্রাভেল বা সময় ভ্রমণ কি সম্ভব? আধুনিক বিজ্ঞান এ ব্যাপারে আলোর দিশা না পেলেও অনেকের মতে তা অসম্ভব নয়। সময় ভ্রমণের ক্ষমতা মানুষ এক সময় ঠিকই অর্জন করবে। কিন্তু ভবিষ্যতে সময়কে জয় করা বুদ্ধিমান মানুষ কি অতীতে ভ্রমণ করেছিলেন। পৃথিবীর বুকে থাকা বেশ কিছু নজির কিন্তু ইতিবাচক বার্তাই দিচ্ছে!

.

সম্প্রতি অস্ট্রিয়ার বিখ্যাত চিত্রশিল্পী ফার্দিনান্দ জর্জ ওয়াল্ডমুলারের আঁকা একটি ছবি নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। দি এক্সপেক্টেড ওয়ান (The Expected One) নামের ওই ছবিটিতে এক নারীকে কিছু একটার দিকে চোখ রেখে হেঁটে আসতে দেখা যায়।

ছবিতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, হাতের জিনিসটার দিকে খুবই মনোযোগ তার। ফলে কিছুটা সামনেই যে মেয়েটির পছন্দের মানুষ ফুল হাতে লুকিয়ে রয়েছে, সেদিকে খেয়ালই নেই!

ভালো করে লক্ষ্য করলে বোঝা যায়, যে জিনিসটির দিকে ওই নারীর গভীর মনোযোগ সেটি আর কিছুই নয়.. স্মার্ট ফোন। তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে, ছবিটি আঁকা হয়েছিল ১৮৫০ সালের দিকে।

বিষয়টা প্রথম পিটার রাসেল নামের স্কটল্যান্ডের এক ব্যক্তির নজরে আসে। সম্প্রতি তার এক বন্ধুকে নিয়ে জার্মানির মিউনিখে নেয়ু পিনাকোথেক (Neue Pinakothek) জাদুঘরে ভ্রমণের সময় ছবিটির দিকে তার নজর যায়। অস্ট্রিয়ার ফার্দিনান্দের ছবিটি সেখানেই রাখা রয়েছে। ছবিটি তিনি ১৮৫০ থেকে ৬০ সালের মধ্যে আঁকেন।

কিন্তু পিটারের নজর কাড়ে নারীর হাতে থাকা জিনিসটি। আজকাল অনেকেই এমনভাবে স্মার্ট ফোনের দিকে তাকিয়ে পথ চলে। ফলে অন্যদিকে মনোযোগ আর থাকে না। কিন্তু অষ্টাদশ শতকের শিল্পীর তুলিতে স্মার্ট ফোন আসবে কিভাবে?

প্রচণ্ড অবাক পিটার গেলেন জাদুঘরের ব্যবস্থাপকের কাছে। তিনি অবশ্য উত্তরও বাতলে দিলেন! জানালেন, যেটিকে তারা স্মার্ট ফোন বলে ভাবছেন সেটি আসলে পবিত্র গ্রন্থ বাইবেল।

কিন্তু তা মানতে নারাজ পিটার ও তার বন্ধু। স্কটল্যান্ডের গ্লাসগো শহরের সাবেক এই সরকারি কর্মকর্তা বিষয়টি নিয়ে টুইটারে টুইট করেন। চিত্রশিল্পী ফার্দিনান্দের ছবিটি ছাড়াও ১৯৩৭ সালে আঁকা উমবার্তো রোমানো’র আঁকা একটি ছবিও পোস্ট করেন।  

Mr. Pynchon and the Settling of Springfield নামের ওই ছবিটিতেও এক রেড ইন্ডিয়ানকে স্মার্ট ফোন হাতে দেখতে পাওয়া যায়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পিটার প্রশ্ন রাখেন, এসব ছবি যখন আঁকা হয়েছিল তখন হালের অতিপ্রয়োজনীয় জিনিসটির কথা কল্পনাতেও কারও আসেনি। তাহলে দুই শিল্পী তাদের ছবিতে স্মার্ট ফোন কেন আঁকলেন?

পিটারের প্রশ্ন, তাহলে কি ভবিষ্যতের মানুষের দেখা পেয়েছিলেন চিত্র শিল্পীরা? তাদের মনে আধুনিক ডিভাইসটি দাগ কেটেছিল বলেই কি তারা তুলিতে স্মার্ট ফোনকে এঁকেছিলেন।

টুইটারে অবশ্য মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। তবে আসল সত্যটা হয়তো সময়ই বলে দেবে!

কেবিএ

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad