ইউএফও তদন্তে প্রাইভেট কোম্পানি (ভিডিও)

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

ইউএফও তদন্তে প্রাইভেট কোম্পানি (ভিডিও)

পরিবর্তন ডেস্ক ৫:১৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১২, ২০১৭

print
ইউএফও তদন্তে প্রাইভেট কোম্পানি (ভিডিও)

মার্কিন সাবেক গুপ্তচরদের একটি দল ভিনগ্রহের প্রাণী এবং অজানা মহাকাশযান ইউএফও নিয়ে তদন্তে মাঠে নামছে। বুধবার সাবেক গুপ্তচরেরা এই বিষয়ে বৈঠকও করে বলে দেশটির ফক্স নিউজসহ বিভিন্ন মার্কিন গণমাধ্যমে খবরও প্রকাশ পায়।

.

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউএফও এবং এলিয়েন সম্পর্কে তদন্তে তারা এফআরপি নামে একটি বেসরকারি সংস্থারও প্রতিষ্ঠা করেছে। সংগঠনটির সদস্যের বেশিরভাগই একসময় মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থায় কর্মরত ছিলেন।

সিআইএ (Central Intelligence Agency) এবং এনএসএ (National Security Agency)’এতে কর্মরত থাকাকালে এসব সদস্য বিভিন্নভাবে ইউএফও বিষয়ে তদন্ত করে। কিন্তু নানা বাধ্যবাধকতার কারণে তারা পরবর্তীতে এসব বিষয়ে চূড়ান্ত তদন্ত করতে ব্যর্থ হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নতুন করে তদন্তের মাধ্যমে মহাকাশের বুদ্ধিমান প্রাণীদের অস্তিত্ব এবং পৃথিবীতে যাতায়াতের বিষয়ে নানা তথ্য সর্বসাধারণকে অবহিত করবে। কোনো মহল কিংবা সংস্থা এই ব্যাপারে সাহায্য চাইলে তারা এগিয়ে আসবে।

অবশ্য সাবেক গোয়েন্দা এবং গুপ্তচরদের একত্রিত করার যিনি মূল নায়ক তিনি রক স্টার টম ডেলং। তার উদ্যোগেই প্রায় ১৮২ জন সাবেক গোয়েন্দা ইউএফও বিষয়ে কাজ করতে আগ্রহী হয়েছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়, নতুন সংস্থা সৃষ্টির বিষয়ে তারা একটি চুক্তিতেও স্বাক্ষর করেছেন।

এই উদ্যোগের প্রসঙ্গে লাস ভেগাসের ইউএফও বিশেষজ্ঞ জন আলেক্সান্ডার বলেন, ‘বিশ্বের শীর্ষ বৈজ্ঞানিকেরা বরাবরই মহাকাশের বিভিন্ন গ্রহে বাসরত বুদ্ধিমান প্রাণীদের সন্ধানে কাজ করছেন। আগে গোপনে হলেও এখন তা প্রকাশ্য। এমনটি যুক্তরাষ্ট্রের মতো চীনও এলিয়েনদের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনের জন্য বিশাল আকারের মানমন্দির নির্মাণ করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ফলে এখন এটা অস্বীকার করার উপায় নেই যে পৃথিবীর বাইরে বুদ্ধিমান প্রাণী থাকার সম্ভাবনাটি নিছক কল্পনা কিংবা উত্তপ্ত মস্তিষ্কের ফসল! অতি গোপণীয় বিষয়টি এখন সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে মার্কিন গোয়েন্দার সংস্থার সাবেক কর্মীরা এগিয়ে এসেছেন। এটি অবশ্যই ভালো পদক্ষেপ!’

ইউএফও নিয়ে কাজ করতে গিয়ে জন আলেক্সান্ডারের নিজেরও অনেক অভিজ্ঞতা হয়েছে। এই বিষয়ে তিনি বই’ও প্রকাশ করেছেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সংস্থা গঠনের পর সদস্যরা বিভিন্ন দেশের সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করে ইউএফও বিষয়ক তথ্য সংগ্রহ করবেন। সেই সঙ্গে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ইউএফও প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গেও তারা কথা বলবেন।

তথ্য সংগ্রহের পর সংস্থাটি এমন ব্যক্তিদের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন, যারা এলিয়েন দ্বারা অপহৃত হয়েছিল।

ভিডিও...

কেবিএ

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad