উগ্র যৌনতায় আসক্ত ‘বাবা’, জেলে ঘুম হারাম

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | ৯ ফাল্গুন ১৪২৪

উগ্র যৌনতায় আসক্ত ‘বাবা’, জেলে ঘুম হারাম

পরিবর্তন ডেস্ক ৭:১৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৭

print
উগ্র যৌনতায় আসক্ত ‘বাবা’, জেলে ঘুম হারাম

এক সময় নিজেকে নপুংসক দাবি করেছিলেন ধর্মগুরু বাবা গুরমিত রাম রহিম সিং। পরে অবশ্য দুই মেয়ে ও এক ছেলের বাবাও হয়েছিলেন। সর্বশেষ দুই সাধ্বীকে ধর্ষণের দায়ে ২০ বছরের জেলের ঘানি টানা শুরু করেছেন ‘রকস্টার বাবা’।

তবে জেলে ভালো করে খাচ্ছেন না, ঘুমচ্ছেন না বাবা রাম রহিম। অস্থির অস্থির ভাব। তবে বাবাকে পরীক্ষা করার পর তাজ্জব বনে গেছেন চিকিৎসকরা। এ যেন কেঁচো খুড়তে সাপ!

চিকিৎসকরা জানান, এই অস্থিরতার প্রধান কারণ উগ্র যৌনতায় বাবা’র তীব্র আসক্তি। ডেরা সাচ্চা সৌদার সাম্রাজ্যে এতোদিন চাহিবা মাত্র নিজের খায়েশ মিটিয়েছেন রাম রহিম। কিন্তু প্রতিদিনের সে অভ্যাসে ছেদ পড়েছে। জেলে দীর্ঘ দিন যৌনসুখ না পাওয়ার কারণেই রাম রহিম এমন অস্থির হয়ে পড়েছেন।

এজন্য বাবা রাম রহিমের মানসিক চিকিৎসার প্রয়োজন রয়েছে বলেও জানান রোহতক জেলের চিকিৎসকরা। শিগগিরই চিকিৎসা শুরু না হলে সমস্যা আরো বাড়তে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তারা।

বাবা’র এই অস্থিরভাবের পেছনে মাদকাসক্তি রয়েছে কি না তাও অবশ্য খতিয়ে দেখছেন চিকিৎসকরা। সম্প্রতি সিবিআই আদালতের অন্যতম সাক্ষী প্রাক্তন ডেরা সদস্য গুরদাস সিং তোর ইন্ডিয়া টুডে-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানান, মদ ও ড্রাগেও আসক্ত রাম রহিম।

গুরুদাস সিংয়ের দাবি, ১৯৮৮ থেকে নিয়মিত মদ্যপান করেন বাবা রাম রহিম। নিয়মিত এনার্জি ড্রিঙ্ক ও সেক্স টনিক খেতেন রকস্টার বাবা।

এই ধর্ষক ধর্মগুরু ১৯৯০ সালে সিবিআই আদালতে দাবি করেছিলেন তিনি নপুংসক। এমনকি স্ত্রী ছাড়া অন্য কোনো নারীর সঙ্গে তার শারীরিক সম্পর্ক নেই বলেও দাবি করেন। তখন প্রশ্ন ওঠে তা হলে কিভাবে দুই মেয়ে ও এক ছেলের বাবা হলেন রাম রহিম?

এমএসআই

 
.

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad