ঘূর্ণিঝড় ইরমা’র আঘাতে সমুদ্র উধাও (ভিডিও)

ঢাকা, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | ৯ আশ্বিন ১৪২৪

ঘূর্ণিঝড় ইরমা’র আঘাতে সমুদ্র উধাও (ভিডিও)

পরিবর্তন ডেস্ক ১০:৩২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৭

print
ঘূর্ণিঝড় ইরমা’র আঘাতে সমুদ্র উধাও (ভিডিও)

প্রশান্ত মহাসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ইরমা কয়েকটি ক্যারিবিয়ান দ্বীপে ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়ে এখন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে আঘাত হানতে শুরু করেছে।

উপকূলের কাছে বেশ কয়েকটি ছোট দ্বীপের অবস্থা খুবই গুরুতর। উপকূলীয় শহরগুলো ইতিমধ্যে জলমগ্ন হয়ে পড়েছে।

ইতিমধ্যে ফ্লোরিডায় অন্তত ৬০ লাখ মানুষকে নিরাপদে সরে যেতে বলা হয়েছে যা ওই অঙ্গরাজ্যের মোট জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশ। তীব্র বাতাসের তোড়ে ইতিমধ্যেই অন্তত দুই লাখ মানুষ বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়েছে।

আবহাওয়াবিদরা ইতিমধ্যেই সতর্ক করে দিয়েছেন, তীব্র বাতাসের ফলে উপকূলে বিধ্বংসী ‘স্টর্ম সার্জ’ আছড়ে পড়তে পারে। এই ‘স্টর্ম সার্জে’ ঝোড়ো বাতাস সমুদ্রের পানিকে ঠেলে প্রায় সাড়ে চার মিটার উঁচু ঢেউয়ের আকারে উপকূলে আছড়ে পড়ে।

এদিকে বাহামা দ্বীপপুঞ্জ থেকে আসা বিভিন্ন ছবিতে দেখা গেছে ঘূর্ণিঝড় ইরমা’র আঘাতে সেখানে কোনো কোনো জায়গায় সমুদ্র বহুদূর পর্যন্ত উধাও হয়ে গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন, লং আইল্যান্ড নামে একটি দ্বীপের চারপাশে সমুদ্রের পানি যেন হঠাৎই শূন্যে মিলিয়ে গেছে। পানিশূন্য সৈকতের ছবি ও ভিডিও এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, ঘূর্ণিঝড় ইরমা এতটাই শক্তিশালী আর তার চাপ এতটাই কম যে, সমুদ্রে তার আশপাশের এলাকা থেকে সবটুকু পানি ঘূর্ণিঝড়ের গর্ভে চলে যাচ্ছে।

শনিবার লং আইল্যান্ডে ইরমা’র গতিপথ ছিল দক্ষিণ-পূর্ব থেকে উত্তর-পশ্চিমে। এর ফলে দ্বীপের উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে সমুদ্রসৈকতের সবটুকু পানি সে সরিয়ে দিয়েছে। যেন ব্লটিং পেপারের মতো কেউ শুষে নিয়েছে সেখানকার পানি!

কারণ, ঘূর্ণিঝড়ের গর্ভে চাপ খুব কমে যায় বলে তা আশপাশের বাতাসকেও টেনে নিতে থাকে। ফলে বদলে যায় সমুদ্রপৃষ্ঠের চেহারা। তখন আশপাশের এলাকা থেকে পানিও টানতে শুরু করে ঘূর্ণিঝড় কেন্দ্র বা গর্ভ।

ইরমা লং আইল্যান্ডের সৈকত থেকে পানি টেনে নিয়েছে। ফলে পানি উধাও হয়ে গেছে লং আইল্যান্ডের সৈকত থেকে। মনে হচ্ছে, যেন কোনো কালেই সেখানে ছিল না কোনো সমুদ্র!

তবে প্রায় ২০০ কিলোমিটার গতির চার ক্যাটাগরির বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড় ইরমা’র জোর কমে গেলে ওই পানি আবার ফিরে আসবে লং আইল্যান্ডের সৈকতে।

এমএসআই

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad