গাছে গাছে ঝুলছে কাঁঠাল

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর ২০১৭ | ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

গাছে গাছে ঝুলছে কাঁঠাল

ইউনুছ আলী আনন্দ, কুড়িগ্রাম ১:৩৬ অপরাহ্ণ, মে ১৮, ২০১৭

print
গাছে গাছে ঝুলছে কাঁঠাল

গাছে গাছে শোভা পাচ্ছে রসালো ফল কাঁঠাল। এবার কুড়িগ্রামের নয়টি উপজেলা- রৌমারী, রাজীবপুর, চিলমারী, উলিপুর, কুড়িগ্রাম সদর, রাজারহাট, ফুলবাড়ী, নাগেশ্বরী ও ভুরুঙ্গামারীতে দেখা গেছে কাঁঠালের বাম্পার ফলন।

.

এসব এলাকার বাড়িতে, রাস্তার ধারে, শহরে ও জঙ্গলের ভেতরে থাকা গাছে ধরেছে প্রচুর কাঁঠাল। গাছের গোঁড়া থেকে আগা পর্যন্ত শোভা পাচ্ছে সর্বোচ্চ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ এই ফল।

কুড়িগ্রামের মানুষের অতি প্রিয় ফল ও তরকারি হিসেবে কাঁঠাল যুগ যুগ ধরে কদর পেয়ে আসছে। কাঁঠালের বিচি এখানকার মানুষের একটি ঐতিহ্যপূর্ণ তরকারি। পাটশাক ও কাঁঠালের বিচির সমন্বয়ে রান্না করা শোলকা দিয়ে এখানকার মানুষ তৃপ্তির সঙ্গে ভাত খেতে পারেন। গবাদিপশুর জন্যও কাঁঠালের ছাল উন্নতমানের গো-খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

কুড়িগ্রামের দন্ত চিকিৎসক মোরসেদুল ইসলাম বাবু পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, কাঁঠাল আমার একটি প্রিয় ফল। অত্যধিক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ এ ফল আমি প্রতি মৌসুমে বেশি করে খাই। কাঁঠালের কোনো অংশই পরিত্যক্ত থাকে না। এর বিচি তরকারি হিসেবে ও ছাল গো-খাদ্য হিসেবে ব্যবহার হওয়ায় কাঁঠালের কদর বেড়েছে।

কাঁঠালের কদর ও বহুগুণের এমন কথা জানালেন রাজীবপুরের শিক্ষক আতাউর রহমান, নাগেশ্বরীর মমিনুর রহমান মিঠু, ফুলবাড়ীর হারুন অর রশীদসহ কাঁঠালপ্রেমি আরও অনেকে।

বহুগুণ সমৃদ্ধ এ কাঁঠাল এখানকার হাট-বাজারে এখনও তেমন উঠতে শুরু করেনি। তবে জ্যৈষ্ঠের শেষ ও আষাঢ় মাসের শুরু থেকে এখানকার হাট-বাজারে কাঁঠাল কেনাবেচা শুরু হবে এমনটি সকলের ধারণা। উৎপাদনে খরচ নেই ও বাজারে চাহিদা থাকায় এ জনপদে কাঁঠালের গাছ রোপণ করে অনেকে কাঁঠাল বিক্রিতে বাড়তি আয় করেন। এখানকার হাট-বাজারে একটি কাঁঠাল সর্বনিম্ন ১০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হয়ে থাকে।

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খামার বাড়ীর উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা অপূর্ব পাল পরিবর্তন ডটকমকে জানান, জেলার নয়টি উপজেলায় এবার কাঁঠালের ফলন তুলনামূলক ভালো হয়েছে। এখানে মোট  ৯২টি কাঁঠাল বাগান রয়েছে। বাগানসহ অন্যান্য স্থানে রোপণ করা মোট ৩৭২ হেক্টর জমিতে কাঁঠালের ফলন হচ্ছে। গতবার এখানে ৪ হাজার ১৯৩ মেট্রিক টন কাঁঠাল উৎপাদন হয়েছে।

ইউএএ/বিএইচ/

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad