থেরেসা মে’র স্টাইল

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ জুন ২০১৭ | ১৩ আষাঢ় ১৪২৪

থেরেসা মে’র স্টাইল

পরিবর্তন ডেস্ক ১:৩২ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২০, ২০১৭

print
থেরেসা মে’র স্টাইল

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে স্টাইলের বিষয়ে মোটেও সংরক্ষণশীল নীতি অনুসরণ করেন না। তার পোশাক পরিচ্ছদ দেখে খুব সহজেই তাকে অন্যদের থেকে আলাদা করা যায়। এ বিষয়ে তিনি সম্পূর্ণ গর্বিত এবং আত্মবিশ্বাসী।

উঁচু হিল বা ডিজাইনারের কোনও পোশাক নিয়ে কথা বলতে তিনি মোটেও দ্বিধাবোধ করেন না। তিনি বরং এসব বিষয়ে নিজের মত প্রকাশ করতে বেশি পছন্দ করেন।

গত বছর এক ওয়ার্ল্ড সামিটে নারীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আমি পোশাক ও জুতা খুবই পছন্দ করি। কাজের পরিবেশ নিজেদের মতো করে নেওয়াটা আমাদের নারীদের জন্য খুবই চ্যালেঞ্জিং। আমার মতে আপনি কৌশলীও হতে পারবেন ও পোশাকও ভালোবাসতে পারবেন। আপনার ক্যারিয়ার থাকবে এবং পোশাকও পছন্দ করতে পারবেন।

প্রাইড অব ব্রিটেন অ্যাওয়ার্ডে হাটু পর্যন্ত থেরেসার সাটিনের পোশাক সবার মধ্যে আলোড়ন তুলেছিলো। কিন্তু তার এ ফ্যাশন সকল কর্মজীবী ও ক্ষমতাধারী নারীদের কাছে অনুপ্রেরণা। তার পোশাক যথেষ্ট শালীন এবং ব্যাক্তিত্বসম্পন্ন বলে মনে করে পপ সুগার নামের ফ্যাশন ওয়েবসাইট।

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগের দিন চিতা ছাপের পাম্প শু ও কালো কোট পরে এসেছিলেন। নিন্দুকেরা কি বলবে তা নিয়ে মোটেও বিচলিত ছিলেন না তিনি। বরং তিনি সকল নারীকে আহ্বান করেন তারা যেন তাদের পছন্দমতো পোশাক পরেন। এতে যেন কেউ কোনও লজ্জা বা দ্বিধা না করে।

থেরেসা মে লাইফস্টাইল ম্যাগাজিন ভোগকে বলেন, আমি আমার রাজনৈতিক ক্যারিয়ার জীবনে পোশাক নিয়ে অনেক কথা শুনেছি। এরকম ঘটবেই আর আপনাকে তা মেনে নিতে হবে। কিন্তু তাদের কথা শুনে আমি ফ্যাশনকে বাদ দেইনি। আমি মনে করি, এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ নারীদেরকে দেখাতে হবে তারা যেমন কাজ করতে পারে তেমন পোশাকের প্রতি আগ্রহ থাকতে পারে।

থেরেসার কাপড়ের রং, ছাপ এবং রং তার মধ্যকার সাহসীভাবকে ফুটিয়ে তুলেছে। একজন প্রধানমন্ত্রীর ঠিক যতটুকু ফ্যাশন করা উচিত ঠিক ততটুকুই তিনি অনুসরণ করছেন। সূত্র-পপ সুগার

আরবি/একে

print
 

আলোচিত সংবাদ