ফেসবুক-গুগলে বিজ্ঞাপন দেয়া বন্ধের হুমকি ইউনিলিভারের

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৪

ফেসবুক-গুগলে বিজ্ঞাপন দেয়া বন্ধের হুমকি ইউনিলিভারের

পরিবর্তন ডেস্ক ৮:৫৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮

print
ফেসবুক-গুগলে বিজ্ঞাপন দেয়া বন্ধের হুমকি ইউনিলিভারের

ফেসবুক, গুগল ও টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যম থেকে ভুয়া খবর, বর্ণবাদ, লিঙ্গবৈষম্য ও জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে না পারলে সেগুলোতে বিজ্ঞাপন দেয়া বন্ধ করার হুমকি দিয়েছে বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান ইউনিলিভার।

সোমবার ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি বিজ্ঞাপন বিষয়ক সম্মেলনে ইউনিলিভারের মার্কেটিং বিভাগের প্রধান কিথ উইড ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলোর জন্য এই সতর্কবার্তা দিতে যাচ্ছে। উইডের বক্তৃতার একটি কপি সংগ্রহ করে একটি সিএনএন মানি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

ডিজিটাল প্লাটফর্মগুলো স্বচ্ছতা দিক দিয়ে ‘জলাভূমির’ চেয়ে উন্নত নয় বলে মন্তব্য করে ইউনিলিভার।

ডাভ, লিপটন, বেন অ্যান্ড জেরিসহ অনেকগুলো ব্র্যান্ডের মালিক ইউনিলিভার বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ বিজ্ঞাপনদাতা প্রতিষ্ঠান। বিজ্ঞাপনের জন্য প্রতি বছর প্রায় ১০ বিলিয়ন ডলার বা ৮৩ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করে প্রতিষ্ঠানটি। তাদের ২৫ শতাংশ বিজ্ঞাপন ডিজিটাল মিডিয়াগুলোতে প্রচার করা হয়।

উইডের বক্তৃতায় বলা হয়েছে, সামাজিক মাধ্যমগুলোতে আপত্তিকর কনটেন্ট ব্যাপকহারে ছড়িয়ে পড়ছে। একারণে শিশুদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না, মানুষের আস্থা কমে যাচ্ছে এবং গণতান্ত্রিক চর্চা বিঘ্নিত হচ্ছে। এই অবস্থাকে আর উপেক্ষা করার উপায় নেই।

বেশ কয়েক বছর ধরে অনলাইন বিজ্ঞাপনের বাজার নিয়ন্ত্রণ করে আসছে ফেসবুক ও গুগল। তাদের কাছে বিপুল সংখ্যক ইন্টারনেট ইউজারদের সম্পর্কে প্রচুর তথ্য থাকায় তারা এই নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছে।

২০১৭ সালে ডিজিটাল বিজ্ঞাপনের জন্য ব্যয় করা অর্থের ৬০ শতাংশই নিয়ে গেছে এই দুটি প্রতিষ্ঠান। বিজ্ঞাপনদাতারা এই অবস্থা নিয়ে মোটেও সন্তুষ্ট নন।

ইউটিউবে বিভিন্ন আপত্তিকর ভিডিওর পাশে পণ্যের বিজ্ঞাপন প্রচার করায় ইতিমধ্যেই গুগলের তীব্র সমালোচনা করেছে কয়েকটি প্রতিষ্ঠান।

অন্যদিকে, ভুয়া খবর ছড়ানো, একেকরকম জনগোষ্ঠীর মানুষকে একেকরকম পোস্ট প্রদর্শন ও অন্য দেশের নির্বাচনকে প্রভাবিত করার অভিযোগে সম্প্রতি সমালোচিত হয়েছে ফেসবুক।

এরপর জানুয়ারি মাসে তারা জানায়, বিভিন্ন করপোরেট প্রতিষ্ঠানের পোস্ট ও ভিডিও প্রদর্শনের পরিবর্তে তারা ইউজারদের কাছের মানুষের পোস্ট তাদের নিউজ ফিডে বেশি দেখাবে। ফেসবুকের মোট আয়ের ৮৫ শতাংশ আসে এসব করপোরেট পোস্ট ও ভিডিও থেকে।

এমআর/এমএসআই

 
.

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad