আন্ডারওয়ার্ল্ডের নেতৃত্ব দিতে দেশে ফিরেছিল শাকিল: র‌্যাব
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০২০ | ২৫ চৈত্র ১৪২৬

আন্ডারওয়ার্ল্ডের নেতৃত্ব দিতে দেশে ফিরেছিল শাকিল: র‌্যাব

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৬:২৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২০

আন্ডারওয়ার্ল্ডের নেতৃত্ব দিতে দেশে ফিরেছিল শাকিল: র‌্যাব

শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের নির্দেশে বাংলাদেশে নতুন করে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাতেই দুবাই থেকে দেশে ফিরেছিলেন মাজহারুল ইসলাম শাকিল। ঢাকার আন্ডারওয়ার্ল্ডের নেতৃত্ব দেওয়াই ছিল তার উদ্দেশ্য।

শনিবার বিকালে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাবের লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম।

এর আগে ভোর ৫টা ১০ মিনিটে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে শাকিলকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। তার কাছ থেকে ২টি বিদেশি পিস্তল, ২টি ম্যাগজিন ও ৬ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়।

সারওয়ার বিন কাশেম বলেন, শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের অন্যতম সহযোগী শাকিল ২০২০ সালের ১২ জানুয়ারি পুনরায় দেশে ফিরে আসে। মূলত তার দেশে আসার উদ্দেশ্য হল জিসানের নির্দেশ ও সহযোগিতায় বাংলাদেশে সন্ত্রাসী কার্যক্রম নতুন করে প্রতিষ্ঠিত করে আন্ডারওয়ার্ল্ডের নেতৃত্ব দেওয়া। এজন্য শাকিল রাজধানীর একটি হাসপাতালে ভর্তি হয় এবং ভর্তির উদ্দেশ্য ছিল হাসপাতালে কোন অনাকাঙ্খিত ঘটনা সৃষ্টি করে জনমনে আতঙ্ক ছড়িয়ে দেওয়া। তবে র‌্যাবের অভিযানের ফলে তার এই প্রচেষ্টা নসাৎ হয়েছে।

শাকিলকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব মিডিয়ার পরিচালক আরো জানান, সে র্দীঘদিন যাবৎ শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের পক্ষে সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজীর মত অপরাধ করে আসছে। ২০০৫ সালে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সময় ছাত্র রাজনীতি শুরু করে শাকিল। ২০০৯ সাল থেকে যৌথভাবে টেন্ডারকাজে জড়িত হয়ে পড়ে।

রেলওয়েতে ছোট ছোট কাজের টেন্ডার নিয়ে কাজ করত শাকিল। এভাবে ২০১০-২০১২ সাল পর্যন্ত বইয়ের টেন্ডার নিয়ে কাজ করে। ২০১৩ সালে গ্রামের বাড়ি ফেনীতে চলে যায় এবং পারিবারিক দোকানের কাজের পাশাপাশি গ্রাম্য রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়ে। ২০১৫ সালে পুনরায় ঢাকায় আসে এবং রাজনীতি শুরু করে শাকিল। এক পর্যায়ে যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার সাথে রেলওয়ের টেন্ডার কাজ নিয়ে বিরোধ তৈরি হয় তার।

র‌্যাবের এই কর্মকর্তা জানান, ২০১৬ সালের জুন মাসে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুবলীগের সহ-সম্পাদক রাজিব হত্যার এজাহারে নাম আসার ৪ দিন পরে শাকিল চীনে চলে যায়। ২০১৭ সাল পর্যন্ত চীনে বসবাস করে এবং কার্গো সার্ভিসের কাজ করে। ২০১৮ সালে চীন থেকে দুবাই চলে যায় এবং ২০২০ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত দুবাই ছিল।

দুবাই থাকা অবস্থায় শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের পক্ষে লেবার ব্রোকারের কাজ করতে থাক্র শাকিল। দুবাইতে লেবার আবাসিক ভবনে বসে সন্ত্রাসী পরিকল্পনা করতো জিসান ও শাকিল। সেখান থেকেই তারা বিভিন্ন সহযোগীর মাধ্যমে বাংলাদেশে সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করত।

পিএসএস/এসবি

আরও পড়ুন...
শীর্ষ সন্ত্রাসী জিসানের সহযোগী শাকিল গ্রেফতার

 

রাজধানী: আরও পড়ুন

আরও