‘গায়ে প্রচণ্ড জ্বর-ব্যাথা, খেলেই বমি করছেন খালেদা জিয়া’
Back to Top

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৯ এপ্রিল ২০২০ | ২৬ চৈত্র ১৪২৬

‘গায়ে প্রচণ্ড জ্বর-ব্যাথা, খেলেই বমি করছেন খালেদা জিয়া’

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৫:৫৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২০

‘গায়ে প্রচণ্ড জ্বর-ব্যাথা, খেলেই বমি করছেন খালেদা জিয়া’

বিএনপি চেয়ারপারসন কারাবন্দি খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা খুবই প্রয়োজন বলে জানিয়েছেন তার সেজো বোন সেলিমা ইসলাম।

মঙ্গলবার বিকেল পৌনে পাঁচটার দিকে খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকের তিনি এ সব কথা বলেন।

সেলিমা ইসলাম বলেন, ওনার শরীর খুবই খারাপ। এই মুহূর্তে যদি উন্নত চিকিৎসা দেয়া না হয় তাহলে উনার যে কি হবে সেটা বলতে পারছি না। আমাদের একটা আবেদন তার উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে মুক্তি দেয়া হোক।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার বিছানা থেকে বাথরুম দুই-তিন হাত জায়গা হবে; তা যেতে ২০ মিনিট সময় লাগে। এখানে যেই চিকিৎসা হচ্ছে তাতে তার শারীরিক কোন উন্নতি হচ্ছে না। আজকেও ফাস্টিং সুগার ১৪-১৫ ছিল।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে তার উন্নত চিকিৎসার জন্য সরকারের কাছে মুক্তি দাবি করেন খালেদা জিয়ার বোন সেলিমা ইসলাম।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা এতটাই খারাপ যে, তিনি উঠে দাঁড়াতে পারেন না। হাঁটতেও পারেন না। একটু হাঁটলে আবার তাকে বিশ্রাম নিতে হচ্ছে। এমতাবস্থায় সরকারের কাছে আমরা তার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি।

তিনি বলেন, আজকে দুই বৎসর যাবৎ খালেদা জিয়া কারা অন্তরীণ আছে। যখন তিনি কারাগারে গিয়েছেন তখন তার শারীরিক যে অবস্থা ছিল এখন সে অবস্থা নেই। সে হেঁটে চলে বেড়াতো এখন সে পাঁচ মিনিটও দাঁড়াতে পারে না।

তিনি বলেন, আজকে তার শরীর খুবই খারাপ ছিল। সে শ্বাসকষ্টে ভুগছে। একদম কথাই বলতে পারছেন না। সে উঠে ৫ মিনিটে তো দাঁড়াতে পারছেন না। বাঁ হাতটা সম্পূর্ণভাবে বেঁকে গেছে। এখন ডান হাতটা বেঁকে যাচ্ছে। খেতে পারছেন না, খেলেই বমি হয়ে যাচ্ছে। গায়ে জ্বর ও প্রচণ্ড ব্যাথা। গায়ে হাত দেওয়া যাচ্ছে না। গায়ে হাত দিলেই সে চিৎকার করছে। এই অবস্থায় মানবিক দিকটা চিন্তা করে ওনার মুক্তি দাবি করছি আমরা।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, তার মুক্তির জন্য আমরা এখনো আবেদন করিনি। আমরা জাতির কাছে আবেদন করছি, জনতার কাছে আবেদন করছি যে ওনার জন্য দোয়া করবেন।

এর আগে বিকেল সোয়া তিনটার দিকে খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাৎ করতে প্রবেশ করে তার পরিবারের পাঁচ সদস্য।

এসময় স্বজনদের মধ্যে ছিলেন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে কোকোর শাশুড়ি মোকরেমা, ভাগ্নি শাহিনা জামান খান, ভাতিজা অভিক ইস্কান্দার, ভাবি মিসেস কানিস ফাতিমা, ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দারের স্ত্রী।

এমএইচ/এসবি

আরও পড়ুন...
খালেদার সাথে দেখা করতে হাসপাতালে স্বজনরা

 

রাজনীতি: আরও পড়ুন

আরও