অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় তারেকের অর্থদণ্ড বহাল

ঢাকা, রবিবার, ২৪ জুন ২০১৮ | ১০ আষাঢ় ১৪২৫

অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় তারেকের অর্থদণ্ড বহাল

হাইকোর্ট প্রতিবেদক ৯:৩২ অপরাহ্ণ, মে ২০, ২০১৮

print
অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় তারেকের অর্থদণ্ড বহাল

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে বিচারিক আদালতের দেয়া অর্থদণ্ড বহাল আছে বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

রোববার এ সংক্রান্ত এক আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও সহিদুল করিমের যুগ্ম বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদেশের পর দুদকের আইনজীবী বলেন, এই মামলার দণ্ডপ্রাপ্ত অন্যতম আসামি কাজী সালিমুল হক কামাল ওরফে কাজী কামালের বিরুদ্ধে বিচারিক আদালতের দেয়া অর্থদণ্ড স্থগিতের আদেশ দিয়েছিলেন উচ্চ আদালত। পরে আদালতের ওই আদেশ পড়ে দেখলাম- আদেশের লেখা অনুসারে এই মামলার সব আসামির অর্থদণ্ডই স্থগিত হয়ে গেছে। এর বিরুদ্ধে আমরা ওই বেঞ্চেই আবেদন করেছি।

তিনি বলেন, দুদকের পক্ষ থেকে আদালতকে বলেছি- সংশ্লিষ্ট আবেদনে শুধু আবেদনকারী কাজী কামাল তার অর্থদণ্ড স্থগিত চেয়েছেন। কিন্তু আদালতের আদেশ অনুসারে পলাতক আসামিদের অর্থদণ্ডও স্থগিত হয়ে গেছে। অথচ তারা বিচারিক আদালতের দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে আপিলই করেননি। তাই আবেদনকারী কাজী কামালের করা আপিল আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি ছাড়া অন্য কারো অর্থদণ্ড যেন স্থগিত না হয়- সে আদেশ দেয়া হোক। আদালত আমাদের আদেশ মঞ্জুর করেছে। তাই তারেক রহমানসহ পলাতক অন্য আসামিদের অর্থদণ্ড বহালই থাকল।

খুরশীদ আলম পরিবর্তন ডটকমকে আরও বলেন, কারাগারে আটক থাকা এই মামলার অন্য দুই আসামি খালেদা জিয়া ও শরফুদ্দীন আহমেদ আলাদাভাবে আবেদন করে তাদের অর্থদণ্ড স্থগিত করিয়েছেন। তাই তাদের অর্থদণ্ড স্থগিতই থাকছে।

তিনি জানান, তবে এ মামলার সব (আটক ও পলাতক) আসামিরই কারাদণ্ড বহাল আছে।

প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ঢাকার একটি বিশেষ জজ আদালত। আর তারেক রহমানসহ ৫ আসামিকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেন। সবাইকে মোট ২ কোটিরও বেশি টাকা অর্থদণ্ডও দিয়েছেন বিচারিক আদালত।

এমএ/এমএসআই

 
.




আলোচিত সংবাদ