ইজতেমায় প্রথম দিনে যারা বয়ান করলেন 

ঢাকা, বুধবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৮ | ১২ বৈশাখ ১৪২৫

ইজতেমায় প্রথম দিনে যারা বয়ান করলেন 

জাহাঙ্গীর আলম, টঙ্গী থেকে ১০:২৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০১৮

print
ইজতেমায় প্রথম দিনে যারা বয়ান করলেন 

সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে টঙ্গীতে তাবলীগ জামায়াতের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমা শুরু হয়েছে। কনকনে শীত আর পাঁচ স্তরের নজিরবিহীন নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে তাবলীগ জামাতের এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে লাখ লাখ মুসল্লি অংশ নিয়েছেন। তবে তাবলীগ জামাতের বিশ্ব আমির মাওলানা সা’দ কান্ধলভির অনুপস্থিতি নিয়ে সাধারণ মুসল্লিদের মাঝে কোন প্রতিক্রিয়া নেই। দু’পক্ষের মাঝে যে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছিল, তা শুধু শীর্ষস্থানীয় মরুব্বিদের মাঝেই সীমাবদ্ধ রয়েছে। শীর্ষ মুরুব্বিদের দু’গ্রুপই সতর্কভাবে তাদের বক্তব্য পেশ করছেন।

এবারের বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে হাজার হাজার ধর্মপ্রাণ মুসল্লি নানা বিড়ম্বনাকে উপেক্ষা করে শুক্রবারেও টঙ্গীর ইজতেমা ময়দানে ছুটে আসেন। এদিন জুমাবার হওয়ায় সকাল থেকেই টঙ্গী ও আশপাশ এলাকার লাখো মুসল্লির ঢল নামে টঙ্গীর তুরাগ তীরে। নামাজের আগেই ইজতেমার পুরো প্যান্ডেল ও ময়দান কানায় কানায় ভরে যায়। প্যান্ডেলের নিচে জায়গা না পেয়ে মুসল্লিরা অংশ নেন ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কসহ আশপাশের সড়ক ও গলিগুলোর ওপরে। রবিবার আখেরি মুনাজাতের পূর্ব মুহূর্ত পর্যন্ত মুসল্লিদের এ ঢল অব্যাহত থাকবে। শুক্রবার প্রথম দিনে বাদ ফজর থেকে আমবয়ানের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। রবিবার আখেরি মুনাজাতের মধ্য দিয়ে প্রথম পর্বের ৩ দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমা শেষ হবে। এবারের বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বে লাখ লাখ মুসল্লির সঙ্গে বিশ্বের প্রায় ৮২টি দেশের প্রায় ৪ হাজার মুসল্লি উপস্থিত হয়েছেন।

বয়ান করলেন যারা:

ঈমান-আমলের উপর প্রথম দিন বাদ ফজর জর্ডানের মাওলানা শেখ ওমর খতিবের আমবয়ানের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার মূল কাজ শুরু হয়। এবারই প্রথমবারের মতো ইজতেমার আমবয়ান আরবিতে দেওয়া হয়। তার বয়ান বাংলায় তরজমা করেন বাংলাদেশের মুরুব্বি মাওলানা আব্দুল মতিন। বাদ জুমা বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা মোহাম্মদ হোসেন, বাদ আসর বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলানা আব্দুল বারী ও বাদ মাগরিব বয়ান করেন বাংলাদেশের মাওলান মোহাম্মদ রবিউল হক।

আগামী রবিবার আখেরি মুনাজাতের পূর্ব পর্যন্ত তাবলীগ জামায়াতের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বিরা তাবলীগের ৬ উসূল অর্থাৎ কালেমা, নামাজ, এলেম ও জিকির, একরামুল মুসলিমিন, সহীহ নিয়ত ও তাবলীগ ইত্যাদি বিষয়ে বয়ান করবেন।

বয়ানের তাৎক্ষণিক অনুবাদ:

বিশ্ব ইজতেমায় বাংলাদেশ, ভারত ও পাকিস্তানের তাবলিগ মারকাজের ১৫-২০ জন শূরা সদস্য ও বুজর্গ বয়ান পেশ করবেন। মূল বয়ান উর্দুতে হলেও বাংলা, ইংরেজি, আরবি, তামিল, মালয়, তুর্কি ও ফরাসি ভাষায় তাৎক্ষণিক অনুবাদ হচ্ছে। বিদেশি মেহমানদের জন্য মূল বয়ান মঞ্চের উত্তর, দক্ষিণ ও পূর্বপাশে হোগলা পাটিতে বসেন। বিভিন্ন ভাষাভাষি মুসল্লিরা আলাদা আলাদা বসেন এবং তাদের মধ্যে একজন করে মুরুব্বি মূল বয়ানকে তাৎক্ষণিক অনুবাদ করে শুনান।

এমজেএ/এএল

 
.

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ





আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad