ঈদে বাসের আগাম টিকিট ১৮ আগস্ট থেকে

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৭ | ৩ কার্তিক ১৪২৪

ঈদে বাসের আগাম টিকিট ১৮ আগস্ট থেকে

এ এইচ এম ফারুক ৪:০৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৭

print
ঈদে বাসের আগাম টিকিট ১৮ আগস্ট থেকে
ফাইল ছবি

আসন্ন পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে দূরপাল্লার যাত্রীবাহী বাসের অগ্রিম টিকিট ১৮ আগস্ট থেকে বিক্রি শুরু হবে। পরিবর্তন ডটকমকে এ তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ বাস ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ফারুক তালুকদার।

এদিকে এখনো ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রির তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি বলে জানিয়েছেন রেলপথমন্ত্রী মজিবুল হক।

মন্ত্রী জানান, শিগগিরই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে এবং সংবাদ মাধ্যমকে জানানো হবে।

পরিবহন মালিকদের নেতা ফারুক তালুকদার বলেন, ঈদুল আজহার অগ্রিম টিকিট ১৮ আগস্ট সকাল ৬টা থেকে নিজ নিজ বাস কাউন্টারের বিক্রি হবে।

ফারুক তালুকদার বলেন, ২ সেপ্টেম্বরকে ঈদ ধরে অগ্রিম টিকিট বিক্রির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের হিসেব অনুযায়ী সবচেয়ে বেশি যাত্রী চাপ থাকবে ৩০ ও ৩১ আগস্ট। এ দুই দিনে সবচেয়ে বেশি মানুষ ঢাকা ছাড়বেন।

সরকারি কেলেন্ডারের হিসেব অনুযায়ী ঈদের আগে শেষ কর্মদিবস হচ্ছে ৩১ আগস্ট বৃহস্পতিবার।

ধারণা করা হচ্ছে, কেউ কেউ এই দিন (বৃহস্পতিবার) ছুটি নিয়ে এক দিন আগেই, অর্থাৎ ৩০ আগস্ট ঢাকা ছেড়ে চলে যাবেন। কেউ কেউ ৩১ আগস্ট অফিস করেই ঢাকা ছাড়বেন। তাই এই দুই দিন সবচেয়ে বেশি চাপ থাকবে।

এবারের ঈদে বাসের টিকিটের চাহিদা তুলনামূলক ভাবে কম থাকবে বলে ধারণা করছেন একাধিক বাস মালিক।

তাদের ধারণা, বিভিন্ন স্থানে রাস্তা খারাপ হওয়ায় বাস সময়মতো গন্তব্যে যেতে পারছে না। ঈদের অনেক আগে থেকেই এ অবস্থা চলছে। যে বাস ১২ ঘণ্টায় ঢাকা আসার কথা, সেই বাস ৩০ ঘণ্টাও ঢাকা আসতে পারছে না। তাই এবার বাস মালিকরাও বাসের সংখ্যা কমিয়ে দিয়েছে। এ জন্য এবার ট্রেনের টিকিটে বেশি চাপ থাকবে বলে মনে করছেন তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ঈদে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাসের চাহিদা থাকে বেশি। যানজটের কারণে দীর্ঘ সময় রাস্তায় থাকতে হয়, সে জন্য শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাসের চাহিদা বেশি থাকে। এ সুযোগে বাসের মালিকরাও শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বাসের টিকিটের দাম দ্বিগুণ করে দেন বলে আভিযোগ রয়েছে।

গত ঈদুল ফিতরে ঢাকা থেকে লালমনিরহাটগামী এসআর ট্রাভেলসের এসি বাসের টিকিটের দাম রাখা হয় ১ হাজার ৬০০ টাকা। অথচ অন্য সময় একই টিকিট ৭০০ টাকায় বিক্রি হয়।

ঢাকার মগবাজারের বাসিন্দা শরিফুল ইসলাম জানান, তিনি সচরাচর বাসে চট্টগ্রাম যান। এবার যাবেন ট্রেনে। তিনি গতবার ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ৬ ঘণ্টার রাস্তা পার হয়েছেন প্রায় তিনগুণ সময় নিয়ে ১৬ ঘণ্টায়। তাই তিনি এবার ট্রেনের টিকিট খুঁজবেন।

এএফ/এনডিএস

print
 

আলোচিত সংবাদ

nilsagor ad