‘রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে মূল কাজ শুরুর অপেক্ষা’

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ জুলাই ২০১৭ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৪

‘রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে মূল কাজ শুরুর অপেক্ষা’

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৩:৫৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০১৭

print
‘রামপালে বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে মূল কাজ শুরুর অপেক্ষা’

রামপালে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের সব প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। এখন মূল কাজ শুরুর অপেক্ষা বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি উপদেষ্টা তৌফিক ই ইলাহি।

জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে সোমবার দুপুরে ‘পদ্মা থেকে রামপাল’ শীর্ষক সেমিনারে এ সব তথ্য জানান তিনি।

বাংলাদেশ স্টাডি ট্রাস্ট আয়োজিত সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তৌফিক ই ইলাহি বলেন, ‘রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প স্থাপনে সব রকম প্রস্তুতি শেষ হয়েছে, এখন কাজ শুরু করার অপেক্ষায়।’

রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে ক্ষতির চেয়ে উপকার বেশি দাবি করে তিনি বলেন, ‘রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্প নিয়ে না শব্দটি বাদ দিয়ে হ্যাঁ সূচক শব্দ বলি। কারণ এ প্রকল্পে অপকারের চেয়ে উপকার বেশি। প্রকল্পটিকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন ইনস্টিটিউট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ উন্নয়নমূলক প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। এতে করে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের জীবনমান উন্নত হবে। অনেক পরিবারের সদস্যরা চাকরি পাবে। তাদের সন্তানদের শিক্ষিত করে তুলতে পারবে।’

রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রকল্পে সুন্দরবনের কোনো ক্ষতি হবে না দাবি করে তিনি বলেন, ‘সুন্দরবন রক্ষা করার সব রকম পরিকল্পনা সরকারের আছে। এ নিয়ে বিরোধিতা করার কিছু নেই।’

ইউনেস্কোকে যুক্তি দিয়ে বোঝানোর পর এ বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের পক্ষে সম্মতি দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘প্রথমে রামপাল প্রকল্প নিয়ে ইউনেস্কো অভিযোগ করলেও পরে আমাদের যুক্তি তাদের বোঝাতে সক্ষম হই, এ প্রকল্প সুন্দরবনের কোনো ক্ষতি করবে না। এতে ২১টি দেশের সমন্বয়ে সম্মেলনে অধিকাংশ দেশ আমাদের পক্ষে সম্মতি দেয়। তবে ইউনেস্কো সুন্দরবন রক্ষায় এ প্রকল্প নিয়ে কিছু দিক নির্দেশনা দিয়েছে। যা পূরণ করলে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে আর কোনো অভিযোগ থাকবে না।’

দেশের পাওয়ার প্লান্টগুলোতে গ্যাসের স্বল্পতার কারণে কাজ করতে পারছে না। জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আগামী বছর এলএমজি গ্যাস আমদানির মাধ্যমে এ প্লান্টগুলোতে বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়ানো হবে।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের চক্ষু বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. নুজহাত চৌধুরী শম্পার সঞ্চালনায় এবং বাংলাদেশ স্টাডি ট্রাস্টের চেয়ারম্যন ড. এ কে আব্দুল মোমিনের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরো উপস্থিত ছিলেন— জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মিজানুর রহমান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক কামরুল হাসান খান, লিভার বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহাতাব সপ্নীল, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক ও বিদ্যুৎ বিভাগের প্রকৌশলী মোহাম্মদ হোসাইন প্রমুখ।

এসআই/এনডিএস

print
 

আলোচিত সংবাদ