হাওরের পানি পরীক্ষায় সুনামগঞ্জে প্রতিনিধি দল

ঢাকা, শনিবার, ২৯ এপ্রিল ২০১৭ | ১৫ বৈশাখ ১৪২৪

হাওরের পানি পরীক্ষায় সুনামগঞ্জে প্রতিনিধি দল

বিশেষ প্রতিবেদক ২:২০ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২১, ২০১৭

print
হাওরের পানি পরীক্ষায় সুনামগঞ্জে প্রতিনিধি দল

সুনামগঞ্জে হাওরে মাছ মারা যাওয়ার কারণ অনুসন্ধানে পানির রাসায়নিক গুণাবলী পরীক্ষা করেছে বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট নদী কেন্দ্র চাঁদপুরের ৩ সদস্যের বিজ্ঞানী প্রতিনিধি দল। শুক্রবার সকাল ১০টায়  সুনামগঞ্জে বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার খচার হাওর, তাহিরপুর উপজেলার হালিরহাওর ও মহালিয়ার হাওরের পানি পরীক্ষা করে তারা জানান, হাওরের পানি স্বাভাবিক অবস্থায় নেই। পানিতে গ্যাসের উপস্থিতি রয়েছে। এ পানি মাছের বেঁচে থাকার অনুপযোগী।

মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মাসুদ হোসেন খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ সময় বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. আশিকুর রহমান ও ইশতিয়াক হায়দার উপস্থিত ছিলেন।

গত ৩০ মার্চ থেকে অতিবৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে একের পর এক হাওরে পানি ঢুকে ফসল তলিয়ে যায়। সুনামগঞ্জ জেলায় এ বছর ২ লাখ ২৩ হাজার ৮৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছিল।

জেলা প্রশাসন বলছে, ৮২ শতাংশ ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে কৃষকেরা বলছেন, ৯০ শতাংশ।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্য অনুযায়ী, সুনামগঞ্জের ৪২টি ফসলি হাওরে ফসল রক্ষায় দেড় হাজার কিলোমিটার বেড়িবাঁধ রয়েছে। ঠিকাদার ও স্থানীয়ভাবে গঠিত প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির (পিআইসি) মাধ্যমে ৬৮ কোটি ৮০ লাখ টাকা ব্যয়ে বাঁধ মেরামত ও নির্মাণের কাজ করা হয়েছে। চৈত্র মাসের বৃষ্টিতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে বাঁধ ভেঙে ৪০টি হাওরের কাঁচা ধান পানিতে তলিয়ে গেছে। এ ছাড়া বিষাক্ত পানির কারণে হাওরের মাছ মরে মরে ভেসে উঠছে।

এআরপি/এনডিএস

print
 

আলোচিত সংবাদ