সিটি নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড আছে: সিইসি

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৯ ফাল্গুন ১৪২৬

সিটি নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড আছে: সিইসি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ৭:৫১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০২০

সিটি নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড আছে: সিইসি

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড আছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা।

সোমবার সন্ধ্যায় নির্বাচন ভবনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

দুই দলের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অভিযোগ কমন, এগুলো আমাদের নিয়ন্ত্রণের মধ্যেই থাকবে। বিএনপি বলেছে তাদের প্রার্থীদের পুলিশ হয়রানি করছে। তবে সেরকম হয়রানির কোনো আলামত আমরা দেখিনি। গোপীবাগের ঘটনার কথা বলেছে তাদের মামলা নেয়নি। পরে আমি ওসির সঙ্গে কথা বললাম সেখানে বসেই। ওসি বললেন তারা আমাদের কাছে আসেনি, মামলা দেয়নি। আওয়ামী লীগ মামলা করেছে সেটাও তারা বলেছে। ক্রিমিনাল অফেন্স থাকলে মামলা তো যেকোনো সংক্ষুব্ধ ব্যক্তি করতেই পারে। সেটা আইনগত বিষয়।’

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ গতকালের ঘটনার জন্য বিএনপিকে দায়ী করেছে। তাদের বক্তব্য এ সুযোগে বিভিন্ন জায়গা থেকে সন্ত্রাসী দল ঢাকায় ঢুকে পড়বে এবং নির্বাচনের সময় নির্বাচন প্রক্রিয়া ব্যাহত করবে, আমরা যেন ব্যবস্থা নেই। আমরা বলেছি যদি নির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ থাকে সেটা বলতে হবে।’

এ ধরনের ঘটনা সুষ্ঠু নির্বাচনের অন্তরায় কিনা এ প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘অবশ্যই এ ধরনের ঘটনা নির্বাচনের প্রতি নেতিবাচক প্রভাব ফেলে, এগুলো না ঘটানোই উচিত। আমরা সব সময়ই বলি এ ধরনের ঘটনা ঘটবে না। যাতে তারা সহনশীলতার সঙ্গে কাজ করে। আমি বিশ্বাস করি তারা সহনশীলতার সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেও। দুটো ঘটনা ঘটেছে এতো বড় শহরে এটা নিয়ে নির্বাচনকে বানচাল করা, ব্যাহত করা বা বিনষ্ট করার কোনো কারণ ঘটেনি।’

একই ঘটনায় দুই দল অভিযোগ দিয়েছে, নির্বাচন কমিশনের কাছে কি মনে হয়েছে? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, ‘ক্রিমিনাল অফেন্স বিষয়ে তো আমরা কিছু বলতে পারি না। তবে স্থানীয়ভাবে তো আমরা তদন্ত করতে পারি, সেটি করতে একটু সময় লাগে। রিটার্নিং অফিসার, ওসি ও ম্যাজিস্ট্রেটকে নিয়োগ করেছি প্রতিবেদন এখন পর্যন্ত আসেনি। আসলে কোনো প্রার্থী জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। অন্য কেউ জড়িত থাকলে ক্রিমিনাল অফেন্স অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

ভোটের দিন আইনশৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কা নেই বলেও জানান প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদা।

বহিরাগতদের ঢাকায় অবস্থান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে তারা অভিযোগ করেছে বহিরাগত এসেছে। আমাদের তো পুলিশের প্রতি নির্দেশনা আছে যে, বহিরাগত লোক সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করতে না পারে। সে বিষয়ে তো নিশ্চিয়ই তারা সতর্ক থাকবে।’

অস্থায়ী ক্যাম্প সম্পর্কে বিএনপির অভিযোগ প্রসঙ্গে সিইসি বলেন, ‘ওটা আমরা উঠিয়ে দেবো। আর ১০০টা ক্যাম্প যে আছে এমন তথ্য আমাদের কাছে নেই। কোথাও থাকতে পারে। সে বিষয়ে আমরা রিটার্নিং কর্মকর্তাদের বলেছি, রাস্তার উপর কোনো ক্যাম্প থাকলে সেটা তুলে দিতে।’

এইচকে/এইচআর

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও