গ্রাহকের ৫ কোটি টাকা তুলে নিল মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক কর্মকর্তা

ঢাকা, বুধবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২০ | ১৬ মাঘ ১৪২৬

গ্রাহকের ৫ কোটি টাকা তুলে নিল মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক কর্মকর্তা

পরিবর্তন প্রতিবেদক ১০:১৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১০, ২০১৯

গ্রাহকের ৫ কোটি টাকা তুলে নিল মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক কর্মকর্তা

মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের অ্যাসিস্টেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ও সেন্টার ম্যানেজার জাহিদ সারোয়ার এক গ্রাহকের স্বাক্ষর জাল করে ব্যাংক হিসাব থেকে প্রায় ৫ কোটি টাকা তুলে নিয়ে গেছেন।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার জাহিদ সারোয়ার ও তার স্ত্রী ফারহানা হাবিবকে আসামি করে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ।

দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ সংস্থাটির সহকারী পরিচালক মো. শফিউল্লাহ্ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

দুদক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, ব্যাংক কর্মকর্তা জাহিদ সারোয়ার অসৎ উদ্দেশ্যে গ্রাহক ফেরদৌসী জামানের মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের বনানী শাখার হিসাব নম্বরের (০০৩৪-০৪৩০০০২৬৫০) অর্থ আত্মসাতের উদ্দেশ্যে স্বাক্ষর জাল করে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের কথা বলে ব্যাংক হিসাবের মোবাইল নম্বর পরিবর্তন করেন।

এরপর হিসাবধারী ফেরদৌসী জামানের নামে ৪টি চেক বই ইস্যু করেন ওই কর্মকর্তা। যার একটি গ্রাহক ফেরদৌসী জামানকে দিলেও তিনটি চেক বই নিজের কাছে রাখেন।

তিনটি চেক বইয়ের ৬০টি পাতায় হিসাবধারী ফেরদৌসী জামানের এবং ১৬টি চেকে গ্রাহকের বেয়ারার মো. ইশতিয়াক হোসেন তালুকদারের স্বাক্ষর জাল করে চার কোটি ৯৭ লাখ ৮০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন।

এর মধ্যে দুই কোটি ২৪ লাখ টাকা ব্র্যাক ব্যাংকের বসুন্ধরা শাখায় তার স্ত্রী ফারহানা হাবিবের মালিকানাধীন আশা ক্রিয়েশনের নামে ব্যাংক হিসাব নম্বরে (১৫২১২০২৬৫১৩৯৬০০১) জমা করেন ওই ব্যাংক কর্মকর্তা।

দুদক সূত্র আরো জানায়, ফারহানা হাবিব তার স্বামী জাহিদ সারোয়ারের অবৈধভাবে উপার্জিত টাকা তার মালিকানাধীন আশা ক্রিয়েশন নামীয় হিসাবে জমা দেয়ার সহযোগিতা করেছেন। এজন্য স্বামী-স্ত্রী উভয়কে আসামি করে দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনে হয়েছে।

অভিযুক্ত জাহিদ সারোয়ার বর্তমানে অবসরে আছেন। ২০১৬ সালের অক্টোবর থেকে ২০১৯ অক্টোবরের মধ্যে ওই অর্থ আত্মসাতের ঘটনা ঘটে।

এফএ/এইচআর

 

জাতীয়: আরও পড়ুন

আরও