চোখ বেঁধে তুলে নেয়ার বিষয়টি সত্য নয়: ডিবি

ঢাকা, সোমবার, ১৬ জুলাই ২০১৮ | ১ শ্রাবণ ১৪২৫

চোখ বেঁধে তুলে নেয়ার বিষয়টি সত্য নয়: ডিবি

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৪:১৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৭, ২০১৮

print
চোখ বেঁধে তুলে নেয়ার বিষয়টি সত্য নয়: ডিবি

কোটা সংস্কার আন্দোলনের তিন ছাত্র নেতাকে চোখ বেঁধে তুলে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি সত্য নয় বলে দাবি করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার আবদুল বাতেন।

তিনি আজ রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপি কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, এটা ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে।

আবদুল বাতেন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসায় হামলার ঘটনায় করা মামলার তদন্তের স্বার্থে একাধিক শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন সময়ে ডিবি কার্যালয়ে ডাকা হচ্ছে। যেহেতু হামলাকারীদের আমরা সরাসরি চিনি না। তাদের চেনার সহযোগিতার জন্য একাধিকবার ছাত্রদের এখানে ডেকে আনা হয়েছে। মামলার তদন্তের অগ্রগতি নিয়ে তিনি বলেন, তদন্তের যথেষ্ট অগ্রগতি হয়েছে।

তিন ছাত্র নেতা যে দাবি করছে চোখ বেঁধে  নেয়া হয়েছে সেটা একেবারেই ভিত্তিহীন। এটা একটা ভুল বোঝাবুঝি। তিন ছাত্রের বিরুদ্ধে সরাসরি কোনো অভিযোগও নেই।

কেন ছাত্ররা চোখ বেঁধে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ তুলেছে, এর ব্যাখ্যা তারাই দিতে পারবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, গতকাল সোমবার কোটা সংস্কার আন্দোলনের তিন যুগ্ম আহ্বায়ককে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা-ডিবির বিরুদ্ধে। গাড়িতে তুলে চোখ বেঁধে তাদেরকে বলা হয়, ‘চুপ থাক কথা বলবি না।’ ছাড়া পেয়ে সোমবার বিকেল সোয়া ৩টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানান যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর।

দুপুর পৌনে ২টার দিকে ক্যাম্পাস থেকে এই তিনজনকে মাইক্রোবাসে করে তুলে নিয়ে যাওয়া বলে জানান বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন।

মিন্টু রোডে অবস্থিত ডিবির উপ-কমিশনারের কার্যালয়ে তাদের নিয়ে যাওয়া হয়। মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ‘কথা বলার জন্য কোটা সংস্কার আন্দোলনের তিন নেতাকে ডিবি কার্যালয়ে আনা হয়েছিল। পরে তারা চলে গেছেন।’ 

এমকে/এএল 

 
.



আলোচিত সংবাদ