নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের একমাস পরে কার্গো পরিবহন শুরু

ঢাকা, সোমবার, ২৫ জুন ২০১৮ | ১০ আষাঢ় ১৪২৫

নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের একমাস পরে কার্গো পরিবহন শুরু

পরিবর্তন প্রতিবেদক ৫:৫৯ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৪, ২০১৮

print
নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের একমাস পরে কার্গো পরিবহন শুরু

যুক্তরাজ্যের কার্গোর ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের প্রায় একমাস পরে নিরাপত্তা বিষয়ক এয়ার কার্গো সিকিউরিটি (এসিসি-৩) সনদ নবায়ণ হওয়ায় ঢাকা-লন্ডন সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনা করতে যাচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।বুধবার সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে বিজি ০০১ ফ্লাইট যোগে ঢাকা থেকে লন্ডনে সরাসরি কার্গো পরিবহন মাধ্যমে দুই বছর পরে আবারো কার্গো পরিবহণ করতে যাচ্ছে এয়ারলাইন্সটি। মঙ্গলবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে বিমানের মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) শাকিল মেরাজ একথা বলেন ।

জানা যায়, গত ৮ মার্চ ২০১৬ ইং তারিখে যুক্তরাজ্য সরকার কর্তৃক বাংলাদেশ হতে আকাশ পথে কার্গো পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। নিরাপত্তাজনিত কারণে বন্ধ হওয়ায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কার্গো আমদানি ও রপ্তানী শাখায় ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের নিরাপত্তা মান অনুযায়ী বিমানবন্দরের সার্বিক নিরাপত্তার মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্যাপক উদ্যোগ নেয় কর্তৃপক্ষ। যার আওতায় ইউরোপগামী কার্গো পণ্যের সেকেন্ডারি স্ক্রিনিংয়ের জন্য এক্সপ্লোসিভ ডিটেক্টর সিষ্টেম (ইডিএস),এক্সপ্লোসিভ ডিটেকশন ডগ (ইডিডি) ,এক্সপ্লোসিভ ট্রেস ডিটেক্টর(ইডিটি) মেশিন স্থাপন করা হয়। ইউরোপগামী সকল কার্গো পণ্যের জন্য বিশেষভাবে সুরক্ষিত RA-3 ওয়্যার হাউজ নির্মাণ করা হয় এবং উক্ত ওয়্যার হাউজে বিমানের কর্মী ব্যতীত বহিরাগতদের প্রবেশ বন্ধ করা হয়।

এছাড়াও বিমানের কার্গো হ্যান্ডেলিং এ নিয়োজিত সকল কর্মীর পুলিশ ক্লিয়ারেন্স, ব্যাকগ্রাউন্ড চেক, ট্রেনিং রেকর্ড, বৈধ পাস, নিয়োগ সংক্রান্ত সকল তথ্য নিয়ে ডাটাবেজ তৈরী করা হয়। কার্গো এলাকার সকল এন্ট্রি পয়েন্টে একসেস কন্ট্রোল সিস্টেম চালু করা হয়। বিমানবন্দর এপ্রোন এলাকায় ওয়ার হ্উাজ থেকে এয়ারক্রাফ্ট কার্গো পরিবহন পর্যন্ত ২৪ ঘন্টা সার্বক্ষনিক এর্স্কট প্রদানের জন্য ৫টি গাড়ী নিয়োজিত করা হয়েছে।

শাহজালাল বিমানবন্দরের নানা উদ্যোগ গ্রহণ করার ফলে যুক্তরাজ্য সর্বশেষ গত ১৮ ফেব্রুয়ারি তারিখে যুক্তরাজ্যের হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেক এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রায় দুই বছর বন্ধ থাকার পর কার্গো নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হলেও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের (এসিসি-৩) সনদ না থাকায় তাৎক্ষণিক কার্গো পরিবহন করতে ব্যর্থ হয় তারা।

বিমান বাংলাদেশ সূত্রে জানা যায়, সনদ নবায়ন না হওয়ায় অডিট এর মুখোমুখি হতে হয়। উক্ত (এসিসি-৩) অডিট গত ১৯-২২ ফেব্রুয়ারি তারিখে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংশ্লিষ্ট অডিটর ২৪/০২/২০১৮ তারিখে অডিট রিপোর্ট সিভিল এভিয়েশন ইউকের কাছে জমা দেন, পরবর্তীতে Department for transportation (DFT)এর কাছে অগ্রগামী করা হয়। পরে গত সোমবার রাতে বিমানকে DFT থেকে ই-মেইলেএসিসি-৩ অডিট সনদ অর্জনের বিষয়ে অবহিত করা হয়। ফলে ১২ মার্চ থেকে বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটে লন্ডনগামী কার্গো পরিবহনে কোন নিষাধাজ্ঞা রইলো না।

টিএটি/এএস

 
.




আলোচিত সংবাদ