পর্যবেক্ষণ: আ’লীগকে ক্ষমতাচ্যুত করতেই বোমা হামলা

ঢাকা, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ৮ ফাল্গুন ১৪২৬

পর্যবেক্ষণ: আ’লীগকে ক্ষমতাচ্যুত করতেই বোমা হামলা

আদালত প্রতিবেদক ২:১৯ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২০, ২০২০

পর্যবেক্ষণ: আ’লীগকে ক্ষমতাচ্যুত করতেই বোমা হামলা

তৎকালীন ক্ষমতাসীন সরকার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত করতে বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) সমাবেশে বোমা হামলা ঘটিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিচারক মো. রবিউল আলম।

সোমবার ঢাকার তৃতীয় অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. রবিউল আলম সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলার রায়ের পর্যবেক্ষণে এ কথা বলেন।

আদালত বলেন, আসামিরা হরকাতুল জিহাদ আল ইসলাম বাংলাদেশ (হুজি) এর সদস্য। তাদের ধারণা, বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির লোকেরা কাফের, বিধর্মী, নাস্তিক, ইসলাম ধর্মে বিশ্বাসী নয়, ইসলাম ধর্মের শত্রু এবং আল্লাহ খোদা মানে না। সে কারণে বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টিকে নিশ্চিহ্ন করার উদ্দেশ্যে আসামিরা এই বোমা হামলা ঘটিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, এ ছাড়াও তৎকালীন ক্ষমতাসীন সরকার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে ক্ষমতা থেকে উৎখাত এবং বিব্রত করার জন্য এই বোমা হামলা করা হয়েছে।

এর আগে সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলা মামলায় ১০ জনের ফাঁসি দিয়েছেন আদালত। দুই জন খালাস পেয়েছেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- মুফতি মাঈন উদ্দিন শেখ, আরিফ হাসান সুমন, মাওলানা সাব্বির আহমেদ, শওকত ওসমান ওরফে শেখ ফরিদ, জাহাঙ্গীর আলম বদর, মহিবুল মুত্তাকিন, আমিনুল মুরসালিন, মুফতি আব্দুল হাই, মুফতি শফিকুর রহমান ও নুর ইসলাম।

আর অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় রফিকুল ইসলাম মিরাজ ও মশিউর রহমানকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

২০০১ সালের ২০ জানুয়ারি সিপিবির সমাবেশে বোমা হামলায় ৫ জন নিহত হন। আহত হন ২০ জন।

নিহত পাঁচজন হলেন- খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা উপজেলার সিপিবি নেতা হিমাংশু মণ্ডল, খুলনা জেলার রূপসা উপজেলার সিপিবি নেতা ও দাদা ম্যাচ ফ্যাক্টরির শ্রমিক নেতা আব্দুল মজিদ, ঢাকার ডেমরা থানার লতিফ বাওয়ানি জুটমিলের শ্রমিক নেতা আবুল হাসেম ও মাদারীপুরের মুক্তার হোসেন, খুলনার বিএল কলেজের ছাত্র ইউনিয়ন নেতা বিপ্রদাস।

এমআই/আরপি

 

আইন ও অপরাধ: আরও পড়ুন

আরও